default-image

চট্টগ্রাম নগরের জলাবদ্ধতা সমস্যা নিরসনের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নয় দফার ইশতেহার ঘোষণা করেছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী শাহাদাত হোসেন। প্রতিশ্রুতিগুলো বাস্তবায়নে কী কী করবেন, তারও রূপরেখা দিয়েছেন ইশতেহারে।

আজ শনিবার দুপুরে চট্টগ্রাম নগরের জামালখানে একটি রেস্তোরাঁয় ইশতেহার ঘোষণা করা হয়। এতে বিএনপির কেন্দ্রীয়, নগর ও জেলা কমিটির নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

ইশতেহার ঘোষণার সময় বিএনপি প্রার্থী শাহাদাত হোসেন বলেন, অবৈধভাবে পাহাড় কাটা ও বর্জ্য অব্যবস্থাপনার কারণে নগরের জলাবদ্ধতা সমস্যা প্রকট আকার ধারণ করেছে। নগরের গুরুত্বপূর্ণ এ সমস্যা নিরসনে সব খাল উদ্ধার করে খনন করা হবে। প্রতি বর্ষার আগে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে খাল, নালা-নর্দমা সংস্কারসহ পানি চলাচলের উপযুক্ত করা হবে।

১৯৯৫ সালের ড্রেনেজ মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়ন, কর্ণফুলী নদীর নাব্যতা ফিরিয়ে আনা ও পাহাড় কাটা বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নেবেন নগর বিএনপির সভাপতি শাহাদাত হোসেন।

নির্বাচিত হলে বর্তমান গৃহকরের প্রয়োজনীয় বিন্যাস ও সহনীয় রাখার ঘোষণা দেন বিএনপি প্রার্থী।

এ ছাড়া স্বাস্থ্যকর চট্টগ্রাম, শিক্ষাবান্ধব নগর, আবাসন সমস্যা নিরসনে পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে ইশতেহারে উল্লেখ করেন শাহাদাত হোসেন।

পরিচ্ছন্ন চট্টগ্রাম গড়তে করপোরেশনের পরিচ্ছন্ন বিভাগে লোকবল বৃদ্ধি, উন্নত প্রযুক্তির যন্ত্রপাতি সংযোজন, সংগ্রহ করা বর্জ্য রিসাইক্লিংয়ের মাধ্যমে কৃষিকাজে ব্যবহার উপযোগী করা, বহুতল ও আবাসিক এলাকার প্রতিটি ঘর থেকে বর্জ্য সংগ্রহের ব্যবস্থা সুনিশ্চিতের ঘোষণা দেন শাহাদাত হোসেন।

এ ছাড়া নিরাপদ চট্টগ্রামের জন্য মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত নগর, সাম্য-সম্প্রীতির চট্টগ্রাম, নান্দনিক পর্যটন নগর ও তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়নে পদক্ষেপ নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

চট্টগ্রামবাসী কোনো অবৈধ মেয়র দেখতে চান না বলে অনুষ্ঠানে মন্তব্য করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী। জনগণ যাতে ভোটাধিকার প্রযোগ করতে পারেন, এ জন্য সাংবাদিকদের সহায়তা কামনা করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন
রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন