বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আলোচনা আছে, দলের চেয়ারম্যান জি এম কাদের মহাসচিব পদে দলের তরুণ সাংসদ শামীম হায়দার পাটোয়ারীকে নিযুক্ত করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু জ্যেষ্ঠ নেতারা এর বিপক্ষে অবস্থান নেন। পরে জাপার চেয়ারম্যান অবস্থান থেকে সরে আসেন।
দলীয় সূত্র জানায়, মহাসচিব পদের জন্য মুজিবুল হক ছাড়াও দলের সাবেক দুই মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার ও মসিউর রহমান এবং ঢাকার সাংসদ সৈয়দ আবু হোসেন, অতিরিক্ত মহাসচিব সাহিদুর রহমান ও শামীম হায়দার পাটোয়ারী, সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য গোলাম মসী মহাসচিব হওয়ার জন্য আগ্রহ দেখান। কিন্তু কেউ সরাসরি নিজের আগ্রহের কথা না বলে নানাভাবে চেষ্টা-তৎপরতা চালান। তবে শেষ পর্যন্ত মুজিবুল হককেই বেছে নিলেন জাপার চেয়ারম্যান জি এম কাদের।

মহাসচিব নিযুক্ত হওয়ার প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে মুজিবুল হক প্রথম আলোকে বলেন, ‘পার্টির চেয়ারম্যান গঠনতন্ত্রের ক্ষমতাবলে আমাকে মহাসচিব পদে নিযুক্ত করেছেন। তিনি আমার ওপর যে আস্থা রেখেছেন, আমি তার মর্যাদা রাখব। আমার লক্ষ্য হবে দলকে শক্তিশালী করে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৩০০ আসনে প্রার্থী দেওয়া এবং দলকে ক্ষমতায় নেওয়া।’

মুজিবুল হক কিশোরগঞ্জ-৩ আসনের সাংসদ। তিনি শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়–সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি। তিনি আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকারের শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী ছিলেন।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন