বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পরিবহনমালিকদের খুশি করতে বিশেষজ্ঞদের মত না নিয়ে সরকার তড়িঘড়ি করে পরিবহনমালিকদের সঙ্গে লোকদেখানো বৈঠক করে বাস-লঞ্চের অযৌক্তিকভাবে বর্ধিত ভাড়া জনগণের কাঁধে চাপিয়ে দিয়েছে। তাঁরা বলেন, পরিবহন ব্যয় বাড়ার ঘটনাকে পুঁজি করে বাজার সিন্ডিকেট নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম আরেক দফা অস্বাভাবিকভাবে বাড়িয়ে দিয়েছে। জাসদ নেতারা অজুহাত নয়, ভর্তুকি অব্যাহত রেখে জ্বালানি তেলের বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহার, বাস-লঞ্চের অযৌক্তিক বর্ধিত ভাড়া কমানো এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য কমানো, বাজার সিন্ডিকেটের চক্রকে ধ্বংস, বাজার সিন্ডিকেটের হোতাদের গ্রেপ্তার-বিচার ও আইনের আওতায় নিয়ে আসার দাবি জানান।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন জাসদ সহসভাপতি ঢাকা মহানগর জাসদের যুগ্ম সমন্বয়ক নুরুল আকতার। সভা পরিচালনা করেন জাসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জাতীয় শ্রমিক জোট বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক নইমুল আহসান।

সমাবেশে বক্তব্য দেন জাসদ সহসভাপতি এবং ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি সফি উদ্দিন মোল্লা, জাসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শওকত রায়হান, জাসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. মোহসীন, জাসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুর রহমান, জাতীয় শ্রমিক জোট বাংলাদেশের সভাপতি ও জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সাইফুজ্জামান, জাসদের তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক ও জাতীয় যুব জোটের সহসভাপতি কাজী সালমা সুলতানা, ঢাকা মহানগর পশ্চিমের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহসম্পাদক মফিজুর রহমান, জাসদ ঢাকা মহানগর পূর্বের সহসভাপতি ও জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মাহাবুবুর রহমান, জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও জাতীয় যুব জোটের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহম্মদ সামসুল ইসলাম, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ (হা-ন) সভাপতি আহসান হাবীব প্রমুখ।

সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল জিরো পয়েন্ট, পল্টন মোড় হয়ে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে শেষ হয়। বিজ্ঞপ্তি

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন