বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তিনি ক্ষমতার অপব্যবহার না করতেও দলের নেতা-কর্মীদের হুঁশিয়ার করে দেন।
রাজনীতিতে ভালো মানুষদের সঙ্গে রাখার নির্দেশ দিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, খারাপ মানুষ দিয়ে রাজনীতি করলে দল নষ্ট হয়ে যাবে।

দুঃসময়ে বসন্তের কোকিলরা দলে থাকবে না,ত্যাগীরাই সুখে-দুঃখে দলের পাশে থাকবে,- তাই সৎ ও ভালো মানুষদের দলে টানারও নির্দেশ দেন ওবায়দুল কাদের।
৭৫ এর পর দেশে যে প্রতিহিংসার রাজনীতি শুরু হয়েছিল তার এখনো রেশ রয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ৭৫'র হত্যাকাণ্ডে কারা জড়িত ছিল?কে নেপথ্যে ছিল? সেই ইতিহাস সবাই জানে- যা কখনো ভুলে যাওয়ার নয়।
তিনি বলেন জিয়া যেমন ৭৫'র হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যের নায়ক ছিলেন,তেমনি ২১ আগস্টে তারেক রহমান ছিলেন মাস্টার্স মাইন্ড।

ওবায়দুল কাদের দুঃখ প্রকাশ করে বলেন আজও আমরা প্রতিহিংসার বৃত্ত থেকে বের হতে পারি নাই।

৭৫ ও ২১ আগস্ট ঘটনায় পারস্পরিক সম্পর্কের দেয়াল আরও উঁচুতে নিয়ে গেছে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন জিয়াউর রহমান দেশে প্রতিহিংসার রাজনীতি শুরু করেছিলেন আর বিএনপি এখনো তা অব্যাহত রেখেছে।
গণতন্ত্রের যে কর্মসম্পর্ক তা নষ্ট করে দিয়েছে বিএনপি, এমনটা মনে করে ওবায়দুল কাদের আবারও দুঃখ প্রকাশ করে বলেন একাধিকবারের একজন প্রধানমন্ত্রীর কয়টা জন্মদিন থাকতে পারে?এটা কি প্রতিহিংসা নয়?

আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের অনুভূতিতে খোঁচা দিতে খালেদা জিয়া এই ভুয়া জন্মদিন পালন করেন বলেও মনে করেন ওবায়দুল কাদের।

বর্তমানে রাজনৈতিক নেতাদের মধ্যে পারস্পরিক কর্ম-সম্পর্কের বিষয়টি অনুপস্থিত, কিন্তু কেন? প্রশ্ন রেখে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন প্রতিহিংসা ও বিদ্বেষের রাজনীতি পরিহার করা আমাদের এখন খুবই জরুরি হয়ে পড়েছে।
ওবায়দুল কাদের প্রয়াত হাসিবুর রহমান স্বপনকে একজন সফল রাজনীতিবিদ আখ্যায়িত করে বলেন একজন নির্লোভ নিরহংকার নেতা ও জনপ্রিয় জনপ্রতিনিধি ছিলেন স্বপন।

শাহজাদপুর পাইলট মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত শোক সভায় সাবেক সাংসদ চয়ন ইসলামের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য অধ্যাপক মেরিনা জাহান কবিতা,সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কেএম হোসেন আলী হাসান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আবদুস সালাম তালুকদার এবং সাংসদ সংসদ তানভীর শাকিল জয়, হাবিবে মিল্লাত প্রমুখ।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন