বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ভোজ্যতেল নিয়ে কারসাজি ও অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বন্দর নগরের সিনেমা প্যালেস মোড়ে এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে সিপিবির চট্টগ্রাম জেলার সভাপতি অশোক সাহা বলেন, তেলের দাম নিয়ে মানুষ কষ্টে আছেন।

নিত্য প্রয়োজনীয় এই পণ্যের দাম আয়ত্তের বাইরে চলে গেছে। মানুষের ন্যূনতম বেঁচে থাকার জন্য যতটুকু প্রয়োজন সেই ক্রয়ক্ষমতাও আজ নাগালের বাইরে চলে গেছে।

আয়ের চেয়ে ব্যয় বেশি হওয়ায় মানুষ সংসারের খরচ চালাতে হিমশিম খাচ্ছেন। তিনি বলেন, বাজার আজ মধ্যস্বত্বভোগী ও সিন্ডিকেটের দখলে। এতে সরকারের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। উল্টো সরকার এদের ওপর ভরসা করে টিকে আছে।

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে অবৈধ ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট ভেঙে দেওয়াসহ মজুতদার, মুনাফাখোর ও মধ্যস্বত্বভোগীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান সিপিবির নেতারা। তাঁরা বলেন, দেশে আজ ‘আধাপেট’ খাওয়া মানুষের সংখ্যা বাড়ছে। স্বল্প আয়ের মানুষকে বাঁচাতে সারা দেশে পর্যাপ্ত নায্যমূল্যের দোকান ও রেশনিং ব্যবস্থা চালু করতে হবে। ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) গাড়ি সংখ্যা বাড়াতে হবে। অতি দরিদ্রদের নগদ সহায়তা দিতে হবে।

সাবেক ছাত্রনেতা রবিউল হোসেনের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য দেন সিপিবির চট্টগ্রাম জেলার সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য উত্তম চৌধুরী, সদস্য দিলীপ নাথ, কোতোয়ালি থানা সংসদের সভাপতি প্রদীপ ভট্টাচার্য, সীতাকুণ্ড থানা সংসদের সহ সাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দিন, সাবেক ছাত্রনেতা প্রীতম দাশ ও ছাত্র ইউনিয়ন চট্টগ্রাম জেলা সংসদের সভাপতি এ্যানি সেন।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন