বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সমাবেশে বক্তারা বলেন, দ্রব্যমূল্যের পাগলা ঘোড়া জনজীবনকে পদদলিত করছে। সাধারণ মানুষের নাভিশ্বাস তুলে দিয়েছে। দ্রব্যমূল্যের চাপে মানুষের জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে। এর মধ্যে জ্বালানি তেলের মূল্য ও বাসভাড়া বৃদ্ধি ‘মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা’র শামিল। মানুষের আয় কমেছে, ব্যয় বেড়েছে, কিন্তু সরকার নির্বিকার।

বক্তারা আরও বলেন, সরকার জনগণের দায়দায়িত্ব না নিয়ে ফ্যাসিবাদী কায়দায় দেশ পরিচালনা করছে। এ অবস্থায় দেশ চলতে পারে না ষড়যন্ত্রকারীদের সৃষ্ট ‘সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস’ দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিকে ছিন্ন ভিন্ন করে দিচ্ছে। সরকারের নিষ্ক্রিয়তা, নিস্পৃহতা ও নিয়ন্ত্রণহীনতায় সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস হিন্দুসম্প্রদায়সহ দেশের অসাম্প্রদায়িক মানুষের মনে ক্ষোভের সঞ্চার করেছে। ঘুষ-দুর্নীতি-লুটপাট যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি মাত্রায় সংঘটিত হচ্ছে। ধনী আরও ধনী হচ্ছে, গরিব আরও গরিব হচ্ছে।

সমাবেশে জীবনযাত্রার ব্যয়ের সঙ্গে মজুরির সামঞ্জস্য বিধানের জন্য ন্যূনতম জাতীয় মজুরি ২০ হাজার টাকা করার দাবিও জানানো হয়।

সমাবেশে বক্তব্য দেন সিপিবির সাধারণ সম্পাদক মোহম্মদ শাহ আলম, সহকারী সাধারণ সম্পাদক কমরেড কাজী সাজ্জাদ জহির।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন