default-image

মহিউদ্দিন মাহমুদ বলেন, দেশে ফিরে হাজি সেলিম লালবাগে ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে তাঁর নির্বাচনী এলাকার বাসিন্দা শাহানা বেগমের জানাজায় অংশ নেন। বেলা দেড়টার দিকে লালবাগের তালগাছা শাহী জামে মসজিদে ওই জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

হাজি সেলিম গত শনিবার বিকেলে কঠোর গোপনীয়তার মধ্য দিয়ে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে থাইল্যান্ডের ব্যাংককে যান।

হাজি সেলিমের এই হঠাৎ দেশত্যাগ নিয়ে সমালোচনা হয়। দণ্ডপ্রাপ্ত হয়েও দেশত্যাগের আইনি বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। এ বিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী খুরশীদ আলম গত শনিবার প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমি মনে করি, সাজাপ্রাপ্ত আসামি হওয়ায় হাজি সেলিমের সংসদ সদস্য পদ আর নেই। একজন সাজাপ্রাপ্ত আসামি বিদেশে যেতে পারেন না। বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া সাজাপ্রাপ্ত আসামি হওয়ার কারণেই বিদেশে যেতে পারেননি। হাজি সেলিমেরও বিদেশে যাওয়ার সুযোগ নেই। তাঁর তো আত্মসমর্পণ করার কথা।’

জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের দায়ে হাজি সেলিমের ১০ বছর সাজা বহাল রেখে হাইকোর্টের দেওয়া পূর্ণাঙ্গ রায় গত ১০ ফেব্রুয়ারি প্রকাশিত হয়। রায়ের অনুলিপি পাওয়ার ৩০ দিনের মধ্যে হাজি সেলিমকে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৭-এ আত্মসমর্পণ করতে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। এই সময়সীমার মধ্যেই আওয়ামী লীগের এই সাংসদ দেশ ছেড়েছিলেন।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন