বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকারের সময় বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়ন হয়েছে। আমরা বিশ্বাস করি, নারীর ক্ষমতায়নের মাধ্যমে জনগণের ক্ষমতায়ন সম্ভব। কারণ, দেশের অর্ধেক জনসংখ্যা হচ্ছে নারী। জনগণের ক্ষমতায়ন যদি করতে হয়, নারীর ক্ষমতায়ন প্রয়োজন। সে জন্য আমাদের নেত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা নারীর ক্ষমতায়নে বিশ্বাস করেন।’

বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। পৌরসভার অ্যাডভোকেট নুরুচ্ছাফা তালুকদার অডিটরিয়ামে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

হাছান মাহমুদ বলেন, নারীর উন্নয়নের জন্য আওয়ামী লীগ সরকার যত কাজ করেছে, অন্য কোনো সরকার এই কাজ করেনি। এখন থেকে ১৫-২০ বছর আগে কেউ ভাবেনি একজন নারী ডিসি-এসপি হবেন। কিন্তু এখন বাংলাদেশের অনেক ইউএনও হচ্ছেন নারী, অনেক জেলার ডিসিও নারী। তাঁরা অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে কাজ করছেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, শুধু সরকারি ক্ষেত্রে নারীর ক্ষমতায়ন নয়, গ্রামেগঞ্জে সবখানে নারীর ক্ষমতায়ন হয়েছে। উপজেলা পরিষদ ও ইউনিয়ন পরিষদে এক–তৃতীয়াংশ নারী সদস্য নিশ্চিত করা হয়েছে। সন্তান জন্মের পর আগে অভিভাবকের জায়গায় শুধু পিতার নাম লেখা হতো, এখন মায়ের নামও লেখা হয়।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন