default-image

নির্বাচন কমিশনের ব্যর্থতায় দেশের মানুষ ভোটাধিকার হারিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন জাতীয় পার্টির (জাপা) মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু। তিনি বলেন, ‘পঙ্গু ও বিকলাঙ্গ’ নির্বাচন কমিশন পদে পদে ব্যর্থতার স্বাক্ষর রাখছে। প্রতিটি নির্বাচনে কুরুক্ষেত্র তৈরি হচ্ছে। নির্বাচন কমিশন ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ করছে।

রোববার দুপুরে রংপুরের পল্লি নিবাসে জাপার প্রয়াত চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পর জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন। এর আগে তিনি জাতীয় যুব সংহতির নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির নেতাদের নিয়ে এরশাদের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।
জিয়াউদ্দিন বাবলু বলেন, দেশের সুশাসন এখন জাদুঘরে, গণতন্ত্র কফিনে বন্দী।

সরকারের সন্ত্রাসী বাহিনী নির্বাচনের পরিবেশ ভূলুণ্ঠিত করেছে, যেটা আগে করেছিল বিএনপির সন্ত্রাসীরা। দেশের মানুষ আজ শান্তিতে ঘুমাতে পারছে না। এ সময় তিনি নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে সরকারের নিষ্ক্রিয়তার সমালোচনা করেন।

বিজ্ঞাপন

জাপার মহাসচিব বলেন, দ্রব্যমূল্য লাগামহীনভাবে বেড়েই চলেছে। বর্তমান সরকার বাজার নিয়ন্ত্রণে সম্পূর্ণ ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। দেশের ৪২ শতাংশ মানুষ দরিদ্র, তার ওপর করোনাকালে আরও দেড় কোটি মানুষ কাজ হারিয়েছে। এ অবস্থায় সাধারণ মানুষের জীবনযাপন দুর্বিষহ হয়ে পড়েছে।

এরশাদের শাসনামলকে উন্নয়নের ‘স্বর্ণযুগ’ দাবি করে জিয়াউদ্দিন বাবলু বলেন, এরশাদ দেশে উন্নয়ন ও সুশাসন একসঙ্গে নিশ্চিত করতে সমর্থ হয়েছিলেন। তাঁর শাসনামলে যমুনা সেতু, কর্ণফুলী সেতুসহ অসংখ্য সেতু ও পাকা সড়ক নির্মাণ হয়েছে। মহাখালী উড়ালসড়কের কাজ পল্লিবন্ধুর শাসনামলেই শুরু হয়েছিল। উপজেলা পরিষদ, এলজিইডি প্রতিষ্ঠা করে দেশের উন্নয়ন নিশ্চিত করেছিলেন। তিনি বলেন, জি এম কাদেরের নেতৃত্বে এরশাদের স্বপ্নের নতুন বাংলাদেশ গড়তে জাতীয় পার্টি এগিয়ে যাচ্ছে।

এ সময় জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, প্রেসিডিয়াম সদস্য রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, সাংসদ আহসান আদেলুর রহমান, জাতীয় যুব সংহতির আহ্বায়ক হুসেইন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ, সদস্যসচিব আহাদ ইউ চৌধুরীসহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন