বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

হাছান মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, ৮৬ বছর পর দুজন সাংবাদিক শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পেলেন। এ জন্য তাঁরা সবার অভিনন্দন পাওয়ার যোগ্য। তাঁরা সব ভয়ভীতি ও লোভ-লালসার ঊর্ধ্বে উঠে সত্য প্রকাশের যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন, সারা বিশ্বের সাংবাদিকেরা এতে উৎসাহিত হবেন।

আজ রোববার সন্ধ্যায় রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ এবাদুল করিমের পক্ষ থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবকে উপহার দেওয়া গাড়ির চাবি হস্তান্তর অনুষ্ঠান ছিল। সেখানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেওয়ার পর তথ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন।

এর আগে অনুষ্ঠানে দেওয়া বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী বলেন, সাংবাদিকদের অনেক ক্ষমতা। সমাজের উন্মোচিত না হওয়া বিষয় এবং মানুষের অব্যক্ত বেদনা তাঁরা তুলে ধরতে পারেন। প্রান্তিক পর্যায়ের সাংবাদিকেরা এ ক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা রাখতে সক্ষম। সাংবাদিকদের এই কাজে দেশ, সমাজ ও রাষ্ট্র উপকৃত হয়।

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মোহাম্মদ এবাদুল করিমের সভাপতিত্বে তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন