পররাষ্ট্র ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পরে ভারত যাবেন: কাদের

বিজ্ঞাপন
default-image

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ভারত সফর বাতিল প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিজয় দিবস ও শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের কারণে তাঁরা ভারত সফর বাতিল করে থাকতে পারেন। তবে তাঁরা পরবর্তী সময়ে যাবেন।

আজ শুক্রবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে কাদের এ কথা বলেন। প্রত্যাগত প্রবাসী আওয়ামী ফোরাম এখানে তাদের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনের আয়োজন করে। এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ওবায়দুল কাদের।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে আমাদের সুসম্পর্ক আছে, গঠনমূলক বন্ধুত্ব রয়েছে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির উজ্জ্বল উদাহরণ হচ্ছে বাংলাদেশ। সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা আসলে কোনো দলীয় পরিচয়ে হয় না। দুর্বৃত্তদের কোনো দল নেই।’ তিনি বলেন, বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতন বলতে যেটা বোঝায়, সেটির দগদগে চিত্র দেখা যাবে বিএনপি ক্ষমতায় আসার পর সংখ্যালঘুদের ওপর যে বর্বরতা হয়েছে তার সঙ্গে। সেটি কেবল ’৭১-এর বর্বরতার সঙ্গে তুলনা করা চলে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি-জামায়াত বর্তমান সরকারকে ব্যর্থ করতে চক্রান্তের পথ বেছে নিয়েছে। এ চক্রান্ত মোকাবিলায় দলীয় নেতা-কর্মীদের সর্বাত্মক প্রস্তুত থাকতে হবে। সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারকে বিপাকে ফেলার জন্য বিএনপি দ্রব্যমূল্যের ওপর ভর করেছে। দ্রব্যমূল্যের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করতে বিভিন্ন সিন্ডিকেটের সঙ্গে তাদের যোগসাজশ রয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কিছু কিছু বিষয় আমরা জেনেছি বিরোধী দল থেকে উসকানি দেওয়া হচ্ছে পণ্যের দাম বৃদ্ধি করতে।’

এ সময় যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টারি নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি ও শেখ রেহানার কন্যা টিউলিপ সিদ্দিক ‘হ্যাটট্রিক বিজয়’ অর্জন করায় শুভেচ্ছা জানান ওবায়দুল কাদের। একই সঙ্গে রুশনারা আলী, রুপা হক, আফসানা বেগম বাঙালি হিসেবে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে লেবার পার্টির হয়ে নির্বাচিত হওয়ায় তাঁদেরও অভিনন্দন জানান তিনি। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মো. আবুল কাশেম।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন