বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সরকারি দলের সাংসদ এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে গোলাম দস্তগীর গাজী জানান, রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলো বেসরকারি অংশীদারত্বের মাধ্যমে পরিচালনা করা হবে না। এগুলোতে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় দীর্ঘমেয়াদি ইজারা প্রদানের কার্যক্রম চলমান। ইতিমধ্যে পাঁচটি প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে নোটিফিকেশন অব অ্যাওয়ার্ড ‌(এনওএ) জারি করা হয়েছে। আশা করা যায় স্বল্প সময়ের মধ্যে এগুলো চালু হবে।

সংরক্ষিত নারী আসনের সাংসদ হেনা মমতার প্রশ্নের জবাবে রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম জানান, বর্তমানে রেলওয়ের বাণিজ্যিক বিভাগে মঞ্জুরিকৃত ২ হাজার ৫১৬ জনবলের বিপরীতে ১ হাজার ৪৬০ জন কর্মরত। এখানে শূন্য পদের সংখ্যা ১ হাজার ৫৬ (৪২%)। সম্প্রতি রেলওয়ের ৪৭ হাজার ৬৩৭ জনের নতুন জনবল কাঠামোর অনুমোদন পাওয়া গেছে।

বেগম লুৎফন নেসা খানের প্রশ্নের জবাবে নূরুল ইসলাম জানান, বর্তমানে রেলওয়ের ২৮৩টি ইঞ্জিন রয়েছে। এর মধ্যে ১৯১টি মিটারগেজ ও ৯২টি ব্রডগেজ। মিটারগেজ ইঞ্জিনের মধ্যে ১৩২টি এবং ব্রডগেজ ৪৩টিসহ মোট ১৭৫টির (৬১%) অর্থনৈতিক আয়ুষ্কাল উত্তীর্ণ হয়েছে। বর্তমানে বিভিন্ন প্রকল্পের আওতায় ১০০টি মিটারগেজ ও ৪০টি ব্রডগেজ নতুন ইঞ্জিন সংগ্রহের কাজ চলমান। ইতিমধ্যে ২০টি মিটারগেজ রেলওয়েতে যুক্ত এবং ১০টি বন্দরে খালাসের অপেক্ষায় রয়েছে। ব্রডগেজ ইঞ্জিনের মধ্যে আটটি কমিশনিং পর্যায়ে রয়েছে। আরও আটটি শিগগিরই বন্দরে পৌঁছাবে।
বেগম লুৎফন নেসা খানের অপর এক প্রশ্নের জবাবে রেলওয়ের দুর্ঘটনা ক্রমান্বয়ে কমে আসছে দাবি করে রেলমন্ত্রী জানান, ২০২০ সালে রেলে মোট ১৪৫টি ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটেছে। ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রেল দুর্ঘটনা ঘটেছে ১০৬টি।

সরকারি দলের সাংসদ মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামানের প্রশ্নের জবাবে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানান, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের আওতায় ২২ হাজার ৪২৮ কিলোমিটার মহাসড়ক রয়েছে। বর্তমান সরকারের আমলে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের আওতায় ৩৫৭টি প্রকল্পের কাজ শেষ হয়েছে। এ সময়ে ৭ হাজার ৩২১ কিলোমিটার মহাসড়ক মজবুতকরণসহ ৯ হাজার ৩৩ কিলোমিটার প্রশস্তকরণের কাজ করা হয়েছে। ৬৩২ কিলোমিটার মহাসড়ক ৪ লেন বা তদূর্ধ্ব লেনে উন্নীত করা হয়েছে।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন