বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রিজভী ঘোষণা দেন, কাল বুধবার ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ পালন করবে বিএনপি। এ উপলক্ষে ঢাকাসহ সারা দেশে জেলা সদরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করবে। ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সকাল ১০টায় মহানগর বিএনপির উদ্যোগে এ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হবে।

রিজভী বলেন, ২০০৮ সাল থেকে যে গণতন্ত্র হত্যাকারী সরকার ক্ষমতায় বসে আছে, সে ধারাবাহিকতায় ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বরের আগের রাতে একই কায়দায় মানুষের অধিকার হরণ করা হয়। নির্বাচন কমিশন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মিলে আগের রাতে ভোট দিয়ে এই সরকারকে ক্ষমতায় বসিয়েছে। বর্তমানে দেশ থেকে গণতন্ত্র নির্বাসিত। মানুষের বাক্‌স্বাধীনতায় তালা মেরে দেওয়া হয়েছে। গণমাধ্যমের স্বাধীনতা হরণ করে নেওয়া হয়েছে। বিচার বিভাগ নির্বাহী বিভাগের আয়নায় সবকিছু দেখতে গিয়ে আইনের শাসনকে ধ্বংস করে দিয়েছে।

গতকাল সোমবার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপির সমাবেশে বাধা দিচ্ছে না সরকার। যদি সরকার বাধা দিত, তাহলে বিএনপির জনসমাবেশে এত লোক এল কীভাবে?’ কাদেরের এ প্রশ্নের জবাবে রিজভী বলেন, ‘সিরাজগঞ্জে বিএনপির সমাবেশে অস্ত্র হাতে যারা হামলা করেছে, তারা কারা? গণমাধ্যমে খবর বেরিয়েছে, তারা সবাই যুবলীগের কর্মী। তারা তো সবাই যুবলীগের কর্মী। তারা এখনো ধরা পড়ছে না কেন? পটুয়াখালীতে বিএনপির সমাবেশে ছাত্রলীগ ও যুবলীগ হামলা করে অনেককে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে, গুলি করে আহত করেছে, তারা কারা? গাজীপুরের সমাবেশে বাধা দেওয়া হয়েছিল কেন?’

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন