সারা দেশে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০-দলীয় জোটের ডাকা গতকাল সোমবারের হরতাল ঢিলেঢালাভাবে পালিত হয়েছে। তবে বিচ্ছিন্নভাবে কিছু এলাকায় সংঘর্ষ, ভাঙচুর ও আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ ও রাবার বুলেট ছুড়েছে।
বিএনপি-জামায়াত ও অঙ্গসংগঠনের অন্তত ১৩৫ নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুলিশের গাড়িসহ ভাঙচুর করা হয়েছে ১৬টি গাড়ি। কক্সবাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত দুই হরতাল-সমর্থককে সাজা দিয়েছেন।
সিলেটে মহানগর বিএনপির নেতাকে গ্রেপ্তার করায় আজ মঙ্গলবার জেলায় আধা বেলা হরতালের ডাক দিয়েছে ২০-দলীয় জোট।
ঢাকার বাইরে প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক, অফিস ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:
রাজশাহী: রাজশাহীতে হরতালকেন্দ্রিক ঘটনায় ৩৬ জনকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। র্যাব একটি ওয়ান শ্যুটারগান ও নয়টি ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করেছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল সাড়ে নয়টার দিকে শালবাগান এলাকায় পেট্রলপাম্পের সামনে বোয়ালিয়া থানার সহকারী কমিশনারের (এসি) গাড়ি রাখা ছিল। পাশের গলি থেকে কয়েকজন হরতাল-সমর্থক ইটপাটকেল ছুড়ে গাড়ির কাচ ভেঙে পালিয়ে যান। এ ছাড়া নগরের রেলগেট, দড়িখরবনা ও হোসেনিগঞ্জ মোড়ে কয়েকটি অটোরিকশা ভাঙচুর করেন হরতাল-সমর্থকেরা। রেলগেট মোড়ে তাঁরা একটি হাতবোমা ফাটান।
সিলেট: সিলেট মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরীকে গ্রেপ্তার করায় আজ সিলেট নগর ও জেলায় আধা বেলা হরতাল আহ্বান করেছে ২০-দলীয় জোট। গতকাল হরতালে পিকেটিং করার সময় শাহরিয়ার ও ছাত্রদলের দুই কর্মীকে আটক করে পুলিশ।
ময়মনসিংহ: পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গতকাল দুপুর পৌনে ১২টার দিকে শহরের গাঙ্গিনারপাড় থেকে শহর ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা হরতালবিরোধী একটি মিছিল নিয়ে নতুন বাজার এলাকায় আসেন। তখন হরি কিশোর রায় সড়কে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীরা অবস্থান করছিলেন। এ সময় ছাত্রলীগের মিছিল থেকে নেতা-কর্মীরা লাঠিসোঁটা নিয়ে বিএনপির কর্মীদের ধাওয়া করলে দুই পক্ষের সংঘর্ষ হয়। ফাটানো হয় কমপক্ষে ১০টি ককটেল। তবে কেউ হতাহত হয়নি। পুলিশ জানায়, নাশকতার আশঙ্কায় রোববার দিবাগত রাতে জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে ২২ জনকে আটক করা হয়।
গাজীপুর: সকাল আটটার দিকে গাজীপুরের টঙ্গীর চেরাগ আলী মার্কেটের বেক্সিমকো সড়ক এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে হরতালের সমর্থনে পিকেটারেরা মিছিল করে গাড়ি ভাঙচুর শুরু করেন। পুলিশ বাধা দিলে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া শুরু হয়। একপর্যায়ে পুলিশ কয়েকটি ফাঁকা গুলি ছোড়ে ও কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করে। এতে পিকেটারেরা পালিয়ে যান।

বিজ্ঞাপন
রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন