বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

একজন রাষ্ট্রদূত প্রকাশ্যে একটি রাজনৈতিক দলের নেতাদের বক্তব্যে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন, এমন ঘটনা দেশে আগে কখনো দেখেননি বলে জানান হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, বাংলাদেশে নিযুক্ত জার্মানির রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বিএনপির বৈঠকে রাষ্ট্রদূত যা বলেছেন, তারা সেটিকে বিকৃতভাবে গণমাধ্যমের সামনে উপস্থাপন করেছে। রাষ্ট্রদূত যা বলেননি, সেটি বিএনপি গণমাধ্যমের সামনে বলেছে। সে কারণে জার্মানির মতো একটি দেশের রাষ্ট্রদূত ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপির রাজনীতি জনগণের সঙ্গে নয়। তারা ক্ষণে ক্ষণে বিদেশিদের কাছে দৌড়ে যায়। বিদেশিদের কাছে চিঠি লেখে। বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর নিজের স্বাক্ষরে আমেরিকার কংগ্রেসম্যানদের কাছে চিঠি লিখেছিলেন বাংলাদেশকে সাহায্য বন্ধ করার জন্য।

ঢাকার ‘নিউমার্কেটে সংঘর্ষে ছাত্রলীগ জড়িত’ বিএনপির মহাসচিবের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করেন হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন ‘মির্জা ফখরুল মিথ্যাচারে চ্যাম্পিয়ন।’ যেকোনো গন্ডগোলকে আশ্রয় করে বিএনপি অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি করতে চায়। নিউমার্কেটের ঘটনা সেটির একটি প্রমাণ।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, সংঘর্ষের ভিডিও ফুটেজ দেখে পরীক্ষা–নিরীক্ষা করেই পুলিশ আসামিদের গ্রেপ্তার করছে। এখন নিজেদের মুখোশ উন্মোচিত হওয়ায় বিএনপি নেতারা নানা ধরনের কথা বলছেন।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন