default-image

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বিষোদ্‌গারের রাজনীতি পরিহার করে সরকারের সঙ্গে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য বিএনপি ও নাগরিক ঐক্যের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

মন্ত্রী আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ আয়োজিত সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মধ্যে ঈদের উপহার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ আহ্বান জানান।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান বলেন, ‘আমি মির্জা ফখরুল সাহেব এবং তাঁর জোটের নেতাদের অনুরোধ জানাব, প্রতিদিন সরকারের প্রতি বিষোদ্‌গার না করে আওয়ামী লীগ যেভাবে জনগণ ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর পাশে দাঁড়িয়েছে, আপনারাও সেভাবে জনগণের পাশে দাঁড়ান এবং আসুন আমরা একসঙ্গে জনগণের জন্য কাজ করি। আমাদের দরজা খোলা আছে, আমরা একসঙ্গে জনগণের জন্য কাজ করতে পারি। কিন্তু আপনারা জনগণের পাশে দাঁড়াবেন না আর প্রতিদিন মিথ্যাচার করবেন, গুজব রটাবেন, এটা বরদাশত করা যাবে না, কারণ অসত্য কখনো গ্রহণযোগ্য নয়।’

বিজ্ঞাপন

মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার খেটে খাওয়া মানুষের সরকার। আওয়ামী লীগ সরকার গরিব-মেহনতি মানুষের সরকার এবং সেই কারণে আওয়ামী লীগ ও তার সরকার আজ খেটে খাওয়া মেহনতি প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর পাশে দাঁড়িয়েছে।’ তিনি বলেন, অন্যদিকে বিএনপি এবং তাদের কিছু মিত্র, যাঁরা কখনো ২০ দলীয় জোট আবার কখনো ঐক্যজোট নানা নামে আবির্ভূত হয়, তাঁদের নিজেদের মধ্যে ঐক্য নেই, তাঁরা জনগণের পাশেও নেই।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আবার যাঁরা নাগরিক ঐক্যের নামে পর্দার অন্তরালে থেকে ভার্চ্যুয়ালি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন আর মাঝেমধ্যে ছিটেফোঁটা কয়েকজনকে নিয়ে প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেন, তাঁদের মানববন্ধনে লোকসংখ্যা দেখে আমাদের লজ্জা লাগে, মনে হয়, ‘‘ছোট পরিবার, সুখী পরিবার’’।’

হাছান মাহমুদ দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, ‘তাদের (নাগরিক ঐক্যের) মানববন্ধনে ১০০ লোক হয় না, সেখানে মানুষের জন্য এক ছটাক চাল নিয়েও তারা উপস্থিত হয় না, অথচ সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদ্‌গার করে।’ তিনি বলেন, সরকারের বিরুদ্ধে অহেতুক সমালোচনা না করে জনগণের পাশে দাঁড়ান। জনগণের সহায়তা করাই এখন একমাত্র রাজনীতি হওয়া বাঞ্ছনীয়।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন