স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও ১৪ দলের সমন্বয়ক মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ‘চৌদ্দগ্রামে পেট্রলবোমায় যাঁরা আটজন মানুষকে হত্যা করেছে, তাঁদের সঙ্গে সংলাপ হবে না, হবে না, হবে না। ২০১৯ সালের আগে এ দেশে কোনো নির্বাচন হবে না।’
গতকাল শনিবার বিকেল পাঁচটায় চৌদ্দগ্রাম উপজেলার নোয়াবাজার ফুড প্যালেস হোটেলের সামনে আয়োজিত এক শান্তি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। চৌদ্দগ্রামে যাত্রীবাহী বাসে পেট্রলবোমা হামলার ঘটনায় আট ব্যক্তি নিহত ও অন্তত ২৭ জন আহত হওয়ার প্রতিবাদে ওই শান্তি সমাবেশ হয়।
চৌদ্দগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুস সোবহান ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে শান্তি সমাবেশে বক্তব্য দেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, রেলপথমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক, সাংসদ আবদুল মতিন খসরু, আ ক ম বাহাউদ্দিন, মো. তাজুল ইসলাম, জাসদের কার্যকরী সভাপতি ও সাংসদ মইন উদ্দীন খান বাদল, সাম্যবাদী দলের সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী দিলীপ বড়ুয়া, কুমিল্লা জেলা পরিষদের প্রশাসক মো. ওমর ফারুক, কুমিল্লা জেলা ১৪ দলের সমন্বয়ক আফজল খান ও চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার মেয়র মো. মিজানুর রহমান প্রমুখ।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী মো. নাসিম বলেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচন না হলে দেশে সামরিক শাসন হত। সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন না হলে থাইল্যান্ডের মতো অবস্থা হত। ভারত ও শ্রীলংকায় নির্বাচিত সরকারের অধীনে নির্বাচন হয়েছে। সেখানে বিরোধী দল জয়ী হয়ে সরকার গঠন করেছে।

বিজ্ঞাপন
রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন