default-image

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেছেন, দুই-চারটি পেট্রলবোমা মেরে আলোচনায় বসানো যায় না। এতে সহিংসতা ও নাশকতা করা যায়, আলোচনা হয় না।

আজ শুক্রবার রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে চলমান রাজনীতি নিয়ে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। নৌকা সমর্থক গোষ্ঠী নামের একটি সংগঠন অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে। খবর বাসসের।

সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, ‘আমরা আলোচনার বিপক্ষে নই। কিন্তু নাশকতা ও সহিংসতা একসঙ্গে চলছে। এর মধ্যে আলোচনা হয় কীভাবে? বোমাবাজি ও বোমা নিক্ষেপ বন্ধ করতে হবে, তারপর আলোচনা। প্রায় ১০০ জন মানুষ পেট্রলবোমায় মারা গেছে, তাদের কী হবে ?’

সুরঞ্জিত বলেন, ইউরোপিয়ান ইউনিয়নও সন্ত্রাস বন্ধ করতে বলেছে। সন্ত্রাস, নাশকতা-সহিংসতা নিয়ে নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন হয় না। তিনি আরও বলেন, যারা পেট্রলবোমা মেরে মানুষ মারছে, তাদের বিচার সন্ত্রাসবিরোধী আইনেই করা উচিত। তিনি বলেন, নানাজন নানা আইনের কথা বলছেন, এতে জনগণ বিভ্রান্ত হয়। নাশকতা আইনে বিচার করতে কোনো দ্বিধা-দ্বন্দ্বের সুযোগ নেই।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন, নৌকা সমর্থক গোষ্ঠীর সভাপতি খন্দকার এমদাদুল হক সেলিম। এ ছাড়া সংগঠনের অন্য নেতারাও বক্তব্য দেন।

বিজ্ঞাপন
রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন