default-image

নৌপরিবহনমন্ত্রী ও শ্রমিক-কর্মচারী-পেশাজীবী-মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় পরিষদের আহ্বায়ক শাজাহান খান তাঁদের মিছিলে বোমা হামলার নিন্দা করেছেন এবং সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছেন।
আজ সোমবার গুলশানের ওয়ান্ডারল্যান্ড পার্ক থেকে খালেদা জিয়ার কার্যালয়ের দিকে যাওয়ার পথে গুলশান-২ নম্বর চত্বরে শ্রমিক-কর্মচারী-পেশাজীবী-মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় পরিষদ আয়োজিত মিছিলে বোমা হামলা চালানো হয়। বোমা হামলার প্রতিবাদে মন্ত্রী বিকেল সাড়ে চারটায় নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান। নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে নৌমন্ত্রী বলেন, ২০–দলীয় জোট বোমা হামলার ঘটনার মধ্য দিয়ে আবার প্রমাণ করল তারা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না। তারা বোমাবাজ ও সন্ত্রাসী দল। নৌমন্ত্রী জানান, বোমা হামলায় ১৮ জনকে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে দুই থেকে তিনজনের অবস্থা গুরুতর।
সকালে বিএনপি-জামায়াত জোটের হরতাল-অবরোধ প্রত্যাহারের জন্য বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কার্যালয় ঘেরাও কর্মসূচি পালন করে শ্রমিক-কর্মচারী-পেশাজীবী-মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় পরিষদ।

কর্মসূচিতে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে হরতাল-অবরোধ প্রত্যাহার এবং বোমাবাজি বন্ধ করতে খালেদা জিয়ার প্রতি নৌমন্ত্রী আহ্বান জানান। তিনি বলেন, খুনির সঙ্গে কোনো সংলাপ নয়।
নৌমন্ত্রী গুলশান থেকে খালেদা জিয়ার কার্যালয় অন্য জায়গায় স্থানান্তরেরও দাবি জানান। এ ছাড়া নাশকতা করার অভিযোগে খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার করার জন্যও সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন
রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন