ব্লগার হত্যায় সরকারের প্রচ্ছন্ন সমর্থন রয়েছে: অজয় রায়

বিজ্ঞাপন
default-image

ব্লগার ও লেখক হত্যায় সরকারের প্রচ্ছন্ন সমর্থন রয়েছে বলে সংশয় প্রকাশ করেছেন বিজ্ঞানমনস্ক লেখক ও ব্লগার অভিজিৎ রায়ের বাবা অধ্যাপক অজয় রায়।
গতকাল শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আর সি মজুমদার মিলনায়তনে বাংলাদেশ প্রগতি লেখক সংঘ আয়োজিত ‘আক্রান্ত মুক্তবাক: নির্বাক রাষ্ট্র’ শীর্ষক এক জাতীয় সেমিনারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের সাবেক এই অধ্যাপক এ মন্তব্য করেন।
অভিজিৎ রায়কে প্রধানমন্ত্রীর পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয় নাস্তিক বলেছেন এমনটি উল্লেখ করে অজয় রায় এর তীব্র নিন্দা ও সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন অভিজিৎ রায় স্বঘোষিত নাস্তিক। আওয়ামী লীগ এ ধরনের রাজনীতি করেনি। এই অপ্রাসঙ্গিক বক্তব্য ব্লগার হত্যা সমর্থন করে। অভিজিৎ একজন মুক্তমনা লেখক। তার লেখার অকুণ্ঠ ক্ষমতা রয়েছে। কিন্তু তোমার যদি লেখার ক্ষমতা না থাকে তবে এ ধরনের অযাচিত মন্তব্য করার কোনো অধিকার নেই।’
অজয় রায় বলেন, ‘ব্লগার হত্যার বিরুদ্ধে সরকারের প্রকাশ্য কোনো প্রতিবাদ বা বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে কি ধরেই নেওয়া যায় ব্লগার হত্যায় সরকারের প্রচ্ছন্ন সমর্থন রয়েছে?’ তিনি বলেন, ‘অভিজিৎ হত্যার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা আমাকে সহমর্মিতা জানিয়েছেন। কিন্তু সংবাদমাধ্যমে এসব খবর প্রচারিত হয়নি। কেন হয়নি? হয়তো সরকার জানাতে চায় ব্লগার হত্যায় তাদের প্রচ্ছন্ন সমর্থন রয়েছে।’
অজয় রায় বলেন, ‘আমি আমার ও আপনাদের সকলের পক্ষ থেকে বিচারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। অতীতের হত্যাকাণ্ডগুলোর বিচার হয়নি। ইতিমধ্যে আমার চেষ্টায় গোয়েন্দা বিভাগের সঙ্গে কথা হয়েছে। এটা নিশ্চিত যে অভিজিৎ হত্যায় দুজন সরাসরি জড়িত। তাদের সহকারী হিসেবে একজনকে চিহ্নিত করা সম্ভব হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তাদের গ্রেপ্তার করতে পারেনি।’
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক এম এম আকাশ বলেন, ‘দুই ধরনের মুক্তচিন্তা রয়েছে। একটি ইসলামকে কেন্দ্র করে জামায়াত-শিবিরের মুক্তচিন্তা। ফারাবির মতো লোক এ ধরনের চর্চা করে মানুষ হত্যা করে। অপরদিকে অভিজিতের মতো মানুষ ধর্মনিরপেক্ষভাবে মুক্তচিন্তার চর্চা করে। তাই মুক্তচিন্তার পক্ষে আমাদের লড়াই করতে হবে এবং এ লড়াইয়ে আমাদের জিততে হবে। মৌলবাদের বিরুদ্ধে সংগ্রামের পাশাপাশি রাষ্ট্রের দুর্বলতা নিয়েও কথা বলতে হবে।’
সংগঠনটির সভাপতি গোলাম কিবরিয়ার সভাপতিত্বে সেমিনারে নাট্যকার মামুনুর রশীদ, অধ্যাপক সৈয়দ আজিজুল হক, সিপিবির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম প্রমুখ বক্তব্য দেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন