default-image

সিটি করপোরেশন পরিচালনার ক্ষেত্রে ভিক্ষা করে চলতে চান না ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস। তিনি বলেছেন, তাঁর লক্ষ্য থাকবে জাতির পিতার স্বপ্ন এবং প্রধানমন্ত্রীর রূপকল্প বাস্তবায়নে তিনি সংস্থাটিকে একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ ও মর্যাদাশীল সংস্থা হিসেবে গড়ে তুলবেন।
আজ মঙ্গলবার দুপুরে নগর ভবনের মেয়র হানিফ অডিটোরিয়ামে সংস্থাটির রাজস্ব বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় মেয়র তাপস এসব কথা বলেন।
গত ১৬ মে মেয়র চেয়ারে বসার পর এই বিভাগের প্রধান কর্মকর্তাকে চাকরিচ্যুত করেছিলেন মেয়র। ওই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে যথাযথভাবে রাজস্ব আদায় না করাসহ নানা অভিযোগ ছিল।

বিজ্ঞাপন

আজকের সভায় রাজস্ব বিভাগের কর্মকর্তারা প্রত্যাশিত রাজস্ব আদায় না হওয়ার প্রতিবন্ধকতার কারণ হিসেবে জনবল-সংকটের বিষয়টি উল্লেখ করেন। কর্মকর্তাদের এমন বক্তব্যের প্রত্যুত্তরে শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, ‘জনবল-সংকটসহ অনেক সমস্যার কথা বলেছেন, খুব খুশি হতাম যদি আপনারা বলতেন ডিএসসিসির মর্যাদা ফিরিয়ে আনতে, আপনারা কেউ সেটা বলেননি। আপনাদের মনে রাখতে হবে, প্রতিকূলতাবিহীন কোনো যাত্রাপথ নেই। সেটা যেমন জীবনসংগ্রামে আছে, তেমনি সব যাত্রাপথেই সে প্রতিকূলতা থাকবে। কিন্তু সে প্রতিকূলতার কারণে কেউ কোনো কিছু অর্জন করতে চেয়ে তা পারেনি, সে রকম নজির নেই। সব প্রতিকূলতা অতিক্রম করেই অর্জন হয়ে থাকে। তাই, আগে কীভাবে চলেছে, আমি সেদিকে ফিরে যেতে চাই না। কিন্তু আমার সংস্থায় আমি ভিক্ষা করে চলতে চাই না। বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতা দেওয়ার পর সেই যুদ্ধবিধ্বস্ত অবস্থাতেই বলেছিলেন, “আমি ভিক্ষুকের জাতি চাই না। আমি চাই বাংলাদেশ স্বয়ংসম্পূর্ণ হোক।” আমারও লক্ষ্য থাকবে জাতির পিতার সেই স্বপ্ন ও প্রধানমন্ত্রীর রূপকল্প বাস্তবায়নে আমি ডিএসসিসিকে একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ ও মর্যাদাশীল সংস্থা হিসেবে গড়ে তোলা।’

বিজ্ঞাপন

কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাজের সুবিধার্থে ও রাজস্ব আদায় বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে পর্যায়ক্রমে সব সমস্যা ও সংকটের যথাযথ সমাধান করা হবে জানিয়ে ডিএসসিসির মেয়র শেখ তাপস আরও বলেন, ‘দুষ্টের দমন ও সৃষ্টের লালন অব্যাহত থাকবে। যাঁরা ভালো কাজ করবেন, যাঁরা আন্তরিকতা, নিষ্ঠা ও সততার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবেন, আমরা তাঁদের অবশ্যই মূল্যায়ন করব। আর যাঁরা দুর্নীতিগ্রস্ত থাকবেন, তাঁদের বিরুদ্ধে অনতিবিলম্বে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তাঁদের অপসারণ করা হতে পারে, তাঁদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হতে পারে। এ ব্যাপারে কোনো রকম ছাড় দেওয়ার প্রশ্ন তো নেই, এ ব্যাপারে কোনো অলসতাও বরদাস্ত করা হবে না।’

বিজ্ঞাপন

রাজস্ব আদায়ের চিত্র পরখ করে দেখতে যেকোনো সময় যে কোনো বাড়ি, স্থাপনা বা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনে যেতে পারেন জানিয়ে ডিএসসিসি মেয়র সতর্ক করে বলেন, ‘কোথাও গিয়ে কারও বিরুদ্ধে দায়িত্বে অবহেলা, গাফিলতি পরিলক্ষিত হলে, সে সময় কোনো অজুহাত চলবে না। তখন সংশ্লিষ্ট দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিবর্গের বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করব।’

প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আরিফুল হকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সংস্থাটির নবনিযুক্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী বলেন, ‘সিটি করপোরেশন একটি সেবামূলক সংস্থা। এই সংস্থাকে জনবান্ধব সংস্থায় পরিণত করতে আপনাদের আন্তরিক প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকলে আমরা এই অর্থবছরে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করতে পারব বলেই বিশ্বাস করি।’

মন্তব্য পড়ুন 0