বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্মরণসভায় জানান, সাদেক হোসেন সারা জীবন জনগণের জন্য কাজ করেছেন। তিনি যেখানেই কাজ করেছেন, সেখানেই নিজের চিহ্ন রেখেছেন। বর্তমান বাংলাদেশের যে পরিপ্রেক্ষিত, তাতে সাদেক হোসেনকে অনুসরণ করা দরকার।

মির্জা ফখরুল আরও জানান, সাদেক হোসেন কখনো পিছুপা হতেন না। তাঁকে অনুসরণ ও অনুকরণ করে সত্যিকার অর্থে জনগণের কাছে গিয়ে জনগণকে এক করে রাস্তায় নামিয়ে নিয়ে আসতে হবে। মানুষের ভোটের অধিকার, বাক্‌স্বাধীনতার অধিকারের জন্য জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করা প্রয়োজন।

সভায় গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি জানান, ন্যায্য লড়াইয়ের বোধ মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে হবে। সাদেক হোসেন মুক্তিযুদ্ধের জন্য ন্যায্য লড়াইয়ের বোধ মানুষের মধ্যে তৈরি করেছিলেন। তিনি সমাজ পরিবর্তনের রাজনীতিতে যুক্ত ছিলেন।

ডাকসুর সাবেক ভিপি ও গণঅধিকার পরিষদের সদস্যসচিব নুরুল হক জানান, যারা ক্ষমতায় আছে, তাদের মধ্যে মানবিকতা নেই। সরকার সামাজিক শিষ্টাচার নষ্ট করেছে।

অন্য রাজনৈতিক দলের প্রতি যে শ্রদ্ধা ও শিষ্টাচার থাকা উচিত, তা নেই। ক্ষমতাসীনেরা মানুষ থেকে দানবে পরিণত হয়েছে। এই দানব থেকে মানুষকে রক্ষা করতে হবে।
স্মরণসভায় আরও বক্তব্য দেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আবদুস সালাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক শাহেদা রফিক, বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, সাদেক হোসেন খোকা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান সাদেক হোসেনের ছেলে ইশরাক হোসেনসহ প্রমুখ।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন