মানুষের মনে প্রশ্ন, এবার কীভাবে চুরি করবে: ইশরাক

বিজ্ঞাপন
default-image

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপির প্রার্থী ইশরাক হোসেন বলেছেন, ২০১৫ সালে কেন্দ্র দখল করে সিল মারা হয়েছিল। জনগণের মনে প্রশ্ন, এবার তারা কীভাবে চুরি করবে।

ইশরাক হোসেন বলেন, ‘যেখানেই যাচ্ছি, এটা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। কারণ, এবার তো ইভিএম। ইভিএমে তো সিল মারা যায় না। বলা হচ্ছে, সকাল আটটার আগে মেশিন ওপেন হবে না। কিছু খবর আমরা পাচ্ছি, আটটার আগেও মেশিন চালু রাখা সম্ভব। এটা রাত পোহালে আমরা দেখতে পাব।’

আজ শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর গুলশানের একটি হোটেলে নির্বাচনের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে মার্কিন দূতাবাসের পলিটিক্যাল কনস্যুলারের সঙ্গে বৈঠক করেন ইশরাক হোসেন। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন বিএনপির এই মেয়র প্রার্থী। দুপুর ১২টায় শুরু হওয়া বৈঠক শেষ হয় ১২টা ৩৫ মিনিটে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের মেয়র প্রয়াত সাদেক হোসেন খোকার বড় ছেলে ইশরাক হোসেন বলেন, ‘জনগণ সিদ্ধান্ত নিয়ে নিয়েছে। কাল রায় দিতে পারে কি না, সেটাই এখন দেখার বিষয়। তাদের রায় প্রদানের জন্য যা যা করণীয়, কেন্দ্র দখলের যদি পাঁয়তারা করা হয়, আমরা কেন্দ্র পাহারা দেব। দখল করব না, দখলমুক্ত করব।’

ভোটাররা সুষ্ঠুভাবে ভোট দিতে পারবে কি না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ইশরাক বলেন, ‘সেটা আগামী কাল দেখা যাবে।’

বিভিন্ন বাসাবাড়িতে গিয়ে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে, ডিবি হানা দিয়ে নেতা–কর্মীদের হয়রানি করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন ইশরাক। এর আগে তিনি বলন, সাড়ে তিন শ থেকে চার শ কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে মনে করছেন তাঁরা। এই সংখ্যা বাড়তেও পারে।

গণমাধ্যমকর্মীরা শেষ আশ্রয়স্থল উল্লেখ করে সঠিক তথ্যটা জাতির সামনে তুলে ধরার আহ্বান জানান ইশরাক হোসেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন