বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বায়োপিকের পরিচালক শ্যাম বেনেগাল, তথ্য কমিশনার আবদুল মালেক, বিএফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক নুজহাত ইয়াসমিন, বায়োপিকের চিত্রনাট্যকার অতুল তেওয়ারি, কাস্টিং ডিরেক্টর বাহারউদ্দিন খেলন, অভিনয়শিল্পী ও কলাকুশলীরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন। তাঁদের সঙ্গে আলোচনা শেষে মন্ত্রী সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘“বঙ্গবন্ধু” বায়োপিকের কাজ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে, ঢাকায় ফাইনাল রাউন্ডের শুটিংয়ের কাজ চলছে। এরপর মুম্বাইতে পোস্টপ্রোডাকশনের কিছু কাজ হবে। আমি মুভির পরিচালক শ্যাম বেনেগাল এবং তাঁর টিমের সঙ্গে কথা বলেছি। তাঁরা ঢাকায় শুটিংয়ের কাজে সন্তোষ প্রকাশ করে জানিয়েছেন, এখানে সিডিউল আনুযায়ী কাজ করতে পারছেন, যেসব সহযোগিতা দরকার, তা পাচ্ছেন। আগামী বছরের মার্চে এটি রিলিজ করতে পারবেন বলে তাঁরা আশা করছেন।’

‘বঙ্গবন্ধু’ মুভি আরও এক বছর আগে রিলিজ করার পরিকল্পনা ছিল কিন্তু করোনার কারণে হয়নি উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিশ্ব পরিস্থিতি ঠিক থাকলে আগামী বছরের মার্চে ছবিটি মুক্তি পেতে পারে।

ভারত ও বাংলাদেশের যৌথ উদ্যোগে ‘বঙ্গবন্ধু’ বায়োপিক একটি মাইলস্টোন মুভি হবে বলে আশাপ্রকাশ করে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘শুধু নতুন প্রজন্ম নয়, বঙ্গবন্ধুর অনেক বিষয় আমরা নিজেরাও পড়েছি, কিন্তু ছবিতে দেখা আর পড়ার মধ্যে অনেক পার্থক্য।

সুতরাং এ ছবি মুক্তি পেলে বঙ্গবন্ধুকে এবং বঙ্গবন্ধুর সংগ্রাম, ত্যাগ, স্বপ্ন, স্বপ্নের বাস্তবায়নগুলো মানুষ বাস্তবরূপে দেখতে পাবে। আমাদের ইতিহাসকে সমৃদ্ধ করার ক্ষেত্রে, নতুন প্রজন্মকে ইতিহাসের ঠিক তথ্য জানানোর ক্ষেত্রে চলচ্চিত্রটি বিরাট ভূমিকা রাখবে বলে মনে করি।’

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন