বিজ্ঞাপন

‘সরকার নাকি বাংলাদেশে ত্রাসের রাজত্ব সৃষ্টি করছে’, বিএনপি মহাসচিবের এই বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, সরকার নয়, ত্রাসের রাজত্ব সৃষ্টি করছে বিএনপি। যেমনটি তারা ২০০১ সালে করেছিল। তিনি বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের শাসনামলে আওয়ামী লীগের হাজারো নেতা-কর্মীর রক্তে দেশকে মৃত্যু উপত্যকা বানিয়েছিল। গুম, হত্যা, খুন, ধর্ষণ ও নির্যাতনের রূপান্তর করেছিল তারা। ’

ওবায়দুল কাদের বিএনপি নেতাদের স্মরণ করে দিয়ে বলেন, ‘মাহিমা, রহিমা, পূর্ণিমাসহ শত শত নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছিল। তা-কি ভুলে গেছে বিএনপি? সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর নির্যাতন ’৭১-এর পাক-হানাদারের নির্যাতনকেও হার মানিয়েছিল।’ বিএনপি নেতাদের আয়নায় নিজেদের চেহারা দেখার আহ্বান জানার তিনি।

দেশকে অস্থিতিশীল করার লক্ষ্যে ২৬ মার্চ দেশের বিভিন্ন স্থানে হেফাজত যে তাণ্ডব চালিয়েছিল, এর সঙ্গে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে বিএনপি জড়িত ছিল জানিয়ে কাদের বলেন, এর আগেও ভাস্কর্য ইস্যুতেও দেশকে অস্থিতিশীল করার লক্ষ্যে ত্রাস সৃষ্টিতে হেফাজতকে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে মদদ দিয়েছিল বিএনপি।

ঈদ সামনে রেখে করোনাকালীন এই সংকটে রাজনৈতিক ব্লেম গেম থেকে সব রাজনৈতিক দলকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের এই জ্যেষ্ঠ নেতা।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ঈদ সামনে রেখে করোনাকালীন এই সংকটে রাজনৈতিক ব্লেম গেম থেকে সব রাজনৈতিক দলের বিরত থাকা উচিত। বিএনপি মহাসচিব সরকারের সমালোচনার নামে এমন সব বিষয় অবতারণা করেন, যার জবাব আওয়ামী লীগকে দিতে হয়। যদিও যা জানতে চাই, তার জবাব তাদের কাছে পাই না।’

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন