বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সম্প্রতি ঢাকা ও কুমিল্লার তিনটি উপনির্বাচনে মনোনয়ন পাওয়ার পর জাপার প্রার্থীরা সরে দাঁড়ান। তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তাঁরা প্রতিদ্বন্দ্বী সরকারি দলের প্রার্থীদের কাছ থেকে আর্থিক সুবিধা নিয়ে সরে দাঁড়ান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সন্ধ্যায় মোক্তার হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমার দ্বারা এগুলো হবে না। আমি এ পর্যন্ত দুবার সংসদে, দুবার উপজেলা পরিষদে নির্বাচন করেছি। চেয়ারম্যানকে বলেছি, রেজাল্ট হওয়া পর্যন্ত মাঠে অপেক্ষায় থাকব।’
নির্বাচন কমিশনের তফসিল অনুযায়ী, আগামী ২ নভেম্বর সিরাজগঞ্জ-৬ আসনে উপনির্বাচন হবে। আওয়ামী লীগ দলীয় সাংসদ হাসিবুর রহমানের (স্বপন) মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়।

এ আসনে মোক্তার হোসেনকে প্রার্থী করল জাপা। বিকেলে জাপার বনানীর কার্যালয়ে সাক্ষাৎকার শেষে দলের চেয়ারম্যান জি এম কাদের মনোনয়ন দেন। মোক্তার হোসেন জাপার কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও শাহজাদপুর উপজেলার সভাপতি। এ ছাড়া জাতীয় তাঁতি পার্টির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক।

জাপার সূত্রে জানা গেছে, মোক্তার হোসেন এর আগে দুবার এ আসনে জাপার প্রার্থী ছিলেন। শাহজাদপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনেও তিনি দুবার প্রার্থী হয়ে পরাজিত হয়েছিলেন।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন