বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিবৃতিতে ওবায়দুল কাদের বলেন, লাখো মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে গণজোয়ার সৃষ্টি হওয়ায় রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে যান চলাচলে সাময়িক বিঘ্ন সৃষ্টি হয়েছে। অনাকাঙ্ক্ষিত যানজট সৃষ্টি হওয়ায় আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছে আওয়ামী লীগ।

default-image

তিনি আরও বলেন, মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে দুপুর থেকেই মিছিলের নগরে পরিণত হয় ঢাকা। নগরের অলিগলি, সড়ক-মহাসড়ক ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’ স্লোগানে প্রকম্পিত হয়ে ওঠে। রাজধানীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী এবং সর্বস্তরের জনগণ মহান মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তীর বাঁধভাঙা আবেগ ও উচ্ছ্বাস নিয়ে এই শোভাযাত্রায় অংশ নেয়।

দেশপ্রেমের বহ্নিশিখায় উদ্ভাসিত, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের চিরঞ্জীব আদর্শ ও মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত নারী-পুরুষ, ছাত্র, যুবক, শ্রমিক ও জনতার পদভারে মুখর হয়ে ওঠে রাজপথ।

বিবৃতিতে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণকারীদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এর মাধ্যমে উন্নয়ন, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধির অন্তর্নিহিত শক্তি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি পুনরায় অকুণ্ঠ সমর্থন ও সংহতি প্রকাশ করেছে। একই সঙ্গে দেশের জনগণ বাংলাদেশ ও শেখ হাসিনাবিরোধী সব ষড়যন্ত্র মোকাবিলার দৃঢ় প্রত্যয় পুনর্ব্যক্ত করেছে।

বিবৃতিতে শান্তপূর্ণ, উৎসবমুখর পরিবেশে সুশৃঙ্খলভাবে শোভাযাত্রাটি সফল করতে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করায় ঢাকা মহানগর পুলিশ, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সব বাহিনী ও সংস্থার সদস্যকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানানো হয়।

আওয়ামী লীগের এই শোভাযাত্রার কারণে শনিবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনেও তীব্র যানজটে ঘণ্টার পর ঘণ্টা নগরবাসীকে রাস্তায় কাটাতে হয়েছে। কোথাও কোথাও দুই থেকে তিন ঘণ্টা বাসের মধ্যে বসে থেকে একপর্যায়ে হাঁটা শুরু করতে হয়েছে কাউকে কাউকে।

সরেজমিন দেখা যায়, দুপুরের আগে থেকেই মৎস্য ভবন এলাকার সামনে থেকে শাহবাগ পর্যন্ত মাওলানা ভাসানী সড়ক, শাহবাগ থেকে সায়েন্স ল্যাব পর্যন্ত শাহবাগ সড়ক, কাকরাইল মসজিদ থেকে মৎস্য ভবন পর্যন্ত কাকরাইল সড়ক, শেরাটন হোটেলের মোড় থেকে শাহবাগ পর্যন্ত সড়ক ও সায়েন্স ল্যাব থেকে ধানমন্ডির দিকে মিরপুর সড়কে যানবাহনের চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

দীর্ঘক্ষণ যানজটে আটকে থাকার পরে যাত্রীদের রিকশা, সিএনজি ও বাস থেকে নেমে হেঁটে গন্তব্যের উদ্দেশে রওনা হতে দেখা যায়। শোভাযাত্রা করতে গিয়ে সাধারণ মানুষকে ভোগান্তিতে ফেলার জন্য অনেকেই বিরক্তি প্রকাশ করেন।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন