default-image

বর্তমানে রাজনীতির নামে ব্যবসা চলছে বলে মন্তব্য করেছেন বিশিষ্ট রাষ্ট্রবিজ্ঞানী অধ্যাপক দিলারা চৌধুরী। তিনি বলেন, এ পরিস্থিতিতে দেশের ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত। এখান থেকে পরিত্রাণ পেতে জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলতে হবে।

আজ সোমবার বিকেলে রাজধানীর পুরানা পল্টনে আমার বাংলাদেশ পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক যোগদান অনুষ্ঠানে দিলারা চৌধুরী এ কথা বলেন।

দিলারা চৌধুরী বলেন, ‘অপরাজনীতি অব্যাহত থাকায় বাংলাদেশের গণতন্ত্র, সংবিধান, বিচারব্যবস্থা ধ্বংস হয়েছে অনেক আগেই। এখন দেখা যাচ্ছে জাতীয় ঐক্যের প্রতীক অন্যান্য প্রতিষ্ঠানও কলুষিত হওয়ার পথে। এখান থেকে পরিত্রাণ পেতে নবগঠিত রাজনৈতিক দল এবি পার্টি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশা করি।’

বিজ্ঞাপন

এবি পার্টি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, দলের নীতি কর্মসূচির সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করে বিএনপি, জামায়াতে ইসলামী, জাসদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের ২৫ জন নেতা এবি পার্টিতে যোগ দিয়েছেন। তাঁদের মধ্যে আছেন জামায়াতের ঢাকা মহানগর শ্রমিকনেতা মো. আনোয়ার হোসেন, বিএনপি নেতা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম, জামায়াতের কদমতলী থানার সাবেক নায়েবে আমির আনোয়ার হোসেন, নিউমার্কেট থানা শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন সেক্রেটারি মোতাহের হোসেন, বেলকুচি থানা ছাত্রদলের সাবেক সেক্রেটারি শাহাদাত হোসেন, ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগরীর সাবেক ছাত্রকল্যাণ সম্পাদক ওমর ফারুক, জাসদ ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক তানভীর আহমেদ, ৫৭ নম্বর ওয়ার্ড জামায়াতের সাবেক সভাপতি মো. নূরনবী, ছাত্রশিবির মহানগরী উত্তর এর সাবেক ছাত্রকল্যাণ সম্পাদক আবদুল মান্নান, বাংলাদেশ ছাত্র কল্যাণ পার্টির সাবেক সভাপতি ওমর ফারুক প্রমুখ।

এবি পার্টির সদস্যসচিব মজিবুর রহমান বলেন, রাজনীতি হলো মানুষের কল্যাণের জন্য সংগ্রাম। এবি পার্টি সেই সংগ্রাম সফল করে বাংলাদেশকে কল্যাণরাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তুলবে।

এবি পার্টির আহ্বায়ক এ এফ এম সোলায়মান চৌধুরীর সভাপতিত্বে যোগদান অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন নারী অধিকার নেত্রী রুবী আমাতুল্লাহ, এবি পার্টির যুগ্ম আহ্বায়ক আবু হেনা মো. এরশাদ হোসেন, যুগ্ম সদস্যসচিব যুবায়ের আহমেদ ভূঁইয়া প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন
রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন