বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করার আগে তৈরি পোশাকশ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ১ হাজার ৬৫০ টাকা ছিল উল্লেখ করে হাছান মাহমুদ বলেন, এখন তৈরি পোশাকশ্রমিকদের মজুরি ৮ হাজার টাকায় উন্নীত হয়েছে। আর পাটকলশ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ৯৬০ থেকে ৮ হাজার ৩০০ টাকা হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার হাত ধরে বিভিন্ন সেক্টরে শ্রমিকদের মজুরি ছয় থেকে আট গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। আর বিএনপি তাদের আমলে বিভিন্ন সময়ে অধিকার আদায়ে আন্দোলনকারী শ্রমিকদের গুলি করে হত্যা করেছে। এটিই বঙ্গবন্ধুকন্যার সঙ্গে অন্যদের পার্থক্য।’

প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার শ্রমিকদের চিকিৎসা, যাতায়াত, বাড়িভাড়া ও তৈরি পোশাকশ্রমিকদের দুপুরের টিফিনের ব্যবস্থাসহ ভাতা নিশ্চিত করেছে বলে জানান হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘আশির দশকে শ্রমিকের মজুরি সাড়ে তিন কেজি চালের দামের সমান করার স্লোগান ছিল। আর এখন শ্রমিকের মজুরি ১৫ কেজি চালের মূল্যের সমান হয়েছে।’

সবাইকে ঈদের আগাম শুভেচ্ছা জানিয়ে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নির্দেশনায় সরকারের পক্ষ থেকে যাবতীয় পদক্ষেপের কারণে সাম্প্রতিক অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছর ঈদযাত্রাটা অনেক নির্বিঘ্ন হয়েছে।

মহাসড়ক, রেল—সব ক্ষেত্রেই অন্যান্য বছরের তুলনায় ব্যবস্থাপনা অনেক ভালো।
এ সময় অন্যান্যের মধ্যে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান স্বজন কুমার তালুকদার, রাঙ্গুনিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আবদুল মোনাফ সিকদার, সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম তালুকদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন