বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সমাবেশে সেলিম উদ্দিন বলেন, ‘বাংলাদেশের যেকোনো নাগরিক আইন, জনশৃঙ্খলা ও নৈতিকতা সাপেক্ষে যেকোনো ধর্ম অবলম্বন, ধর্ম পালন ও প্রচারের অধিকার রাখে। আমরাও তাই রাখি। কিন্তু গত ১২ বছর ধরে আমাদের দাঁড়াতে দেওয়া হচ্ছে না, কথা বলতে দেওয়া হচ্ছে না। আমরা কি আইন মানি না?’

সেলিম উদ্দিন বলেন, ‘বাংলাদেশে আইন মানার যদি একটি দল থাকে, সেটি জামায়াতে ইসলামী। আমরা যদি আইন না মানতাম, আপনারা আমাদের এত নেতাকে ফাঁসি দিতে পারতেন না। আমরা আইনের অনুসারী, আমরা জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে এসব ফাঁসির জবাব আমরা দেব।’

জামায়াতের কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের এই সদস্য আরও বলেন, ‘আমরা জনস্বার্থবিরোধী কাজ করি না, জনগণের কল্যাণে কাজ করি। আমরা নৈতিকতাকে ভূষণ মনে করি। তাই কথা বলার অধিকার যদি একটি দলের থাকে, সেই দল জামায়াতে ইসলামী এবং ইসলামী ছাত্রশিবির। এই দলের বিরুদ্ধে অনেক করেছেন, এবার ক্ষান্ত দিন।’

default-image

বর্তমান সরকার সর্বক্ষেত্রে ব্যর্থ দাবি করে সেলিম উদ্দিন বলেন, ‘আপনারা দেশ চালাতে পারেননি, মানুষের নিরাপত্তা দিতে পারেননি। আপনাদের আর একটি মুহূর্তও দেশের মানুষ ক্ষমতায় দেখতে চায় না। আপনারা ক্ষমতা ছেড়ে দিন।’
সেলিম উদ্দিনের বক্তব্যের পর মিরপুর ১ নম্বর এলাকা থেকে একটি মিছিল টেকনিক্যালের রোডে বের হয়ে কিছু দূর গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর উত্তরের সেক্রেটারি মুহাম্মদ রেজাউল করিম, সহকারী সেক্রেটারি মাহফুজুর রহমান, নাজিম উদ্দিন মোল্লা, ফখরুদ্দীন মানিক প্রমুখ।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন