বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সনাতন সমাজকল্যাণ সংঘের সভাপতি ও বাংলাদেশ কৃষক লীগের সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ, সনাতন সংঘের সাধারণ সম্পাদক স্বপন কুমার মজুমদারসহ পূরোহিত, পূজারি, অভ্যাগত অতিথিরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘পাকিস্তানি রাষ্ট্রব্যবস্থায় ধর্মকে মুখ্য করা হয়েছিল। কিন্তু আবহমান বাংলার সংস্কৃতি হচ্ছে জাতি–ধর্মনির্বিশেষে মানুষ হিসেবেই বড় পরিচয়। সে কারণে পাকিস্তান সৃষ্টির পরপরই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বুঝতে পারেন, ধর্মের ভিত্তিতে রচিত পাকিস্তানি রাষ্ট্রব্যবস্থায় মুক্তিলাভ সম্ভব নয়। জাতির পিতা অসাম্প্রদায়িক চেতনায় স্বাধীন বাংলাদেশ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করেছেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে সব ধর্মের মানুষের মিলিত রক্তস্রোতে অর্জিত লাল-সবুজ পতাকার স্বাধীন বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক অপশক্তির কোনো স্থান নেই। বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার বিশ্বাস করে, ‘ধর্ম যার যার, উৎসব সবার’। বাংলাদেশ আজ সারা বিশ্বে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য নজির।

কৃষিবিদ সমীর চন্দ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সব ধর্মের মানুষ বাংলাদেশে একটি ফুলের বাগানের মতো রয়েছে। এই ধারা অব্যাহত থাকুক, দুর্গা দেবীর কাছে সেই প্রার্থনা আমাদের।’

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন