আজ মঙ্গলবার বিকেলে সচিবালয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের চেক বিতরণ অনুষ্ঠান শেষে ঈদের পরে বিএনপির আন্দোলনের ঘোষণা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন।

কল্যাণ ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সুভাষ চন্দ বাদলের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ওমর ফারুক, সাধারণ সম্পাদক দীপ আজাদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আকতার হোসেন এ সময় উপস্থিত ছিলেন। প্রধান তথ্য কর্মকর্তা মো. শাহেনুর মিয়া, মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. মাহফুজুল হক প্রমুখ অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

এ সময় নিউমার্কেটের ঘটনা নিয়ে বিএনপির বক্তব্য প্রসঙ্গে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বলেন, ‘সেই ঘটনায় বিএনপির স্থানীয় নেতারা যে ‘ঘি ঢেলেছেন’, পুলিশের কাছে সেই তথ্য আছে। যে দুই দোকান কর্মচারীর মধ্যে বচসা, সেই দুই দোকানের মালিক কিন্তু বিএনপি নেতা। সুতরাং এই বচসা ঘটানোর পেছনে দুরভিসন্ধি আছে কি না, সেটি তো অবশ্যই খুঁজে বের করতে হবে। তবে নিউমার্কেটের ঘটনায় যাঁরাই যুক্ত, তাঁরা যে দলের বা যে মতেরই হন, তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

দৈনিক পত্রিকার প্রচারসংখ্যা নিয়ে প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ইংরেজি পত্রিকাগুলোর প্রচারসংখ্যা হালনাগাদ করে বাস্তবতার কাছাকাছি নিয়ে আসা হয়েছে।

বাংলা পত্রিকাগুলোর ক্ষেত্রেও আমরা সেটা খুব শিগগির করে দেব।’ মন্ত্রী জানান, অষ্টম ওয়েজবোর্ড যারা বাস্তবায়ন করেনি, তাদের সরকারের কোনো ক্রোড়পত্র দেওয়া হবে না এবং ভবিষ্যতে নবম ওয়েজবোর্ড যারা বাস্তবায়ন করবে না, সে ক্ষেত্রে কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে, সেটি নিয়েও ভাবা হচ্ছে।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন