সরকার নিজ স্বার্থে বিভিন্ন বাহিনীকে ব্যবহার করছে: ফখরুল

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর
ফাইল ছবি

বিভিন্ন বাহিনীকে সরকার অন্যায়ভাবে নিজেদের হীন স্বার্থে অপব্যবহার করছে বলে দাবি করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, সরকার এভাবে এসব বাহিনীকে জনগণের মুখোমুখি দাঁড় করাচ্ছে।

আজ সোমবার এক বিবৃতিতে বিএনপির মহাসচিব এ কথা বলেন। বিবৃতিতে বলা হয়, গত বৃহস্পতিবার ছাত্রদল চট্টগ্রাম মহানগরীর সাবেক সহসাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলামকে চট্টগ্রামের বায়েজিদ এলাকা থেকে বিনা পরোয়ানায় গ্রেপ্তার করে তাঁর পায়ে বন্দুক ঠেকিয়ে গুলি করা হয়। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে তাঁকে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাঁর বাঁ পা কেটে ফেলতে হয়েছে। আজ এ ঘটনার প্রতিবাদেই এ বিবৃতি দেওয়া হয়।

মির্জা ফখরুল বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর দায়িত্ব দেশের মানুষের জানমালের নিরাপত্তা বিধান করা। সেখানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কিছু সদস্য ক্ষমতাসীনদের তুষ্ট করতে বিরোধীদলীয় নেতা-কর্মী ও সাধারণ মানুষের ওপর অন্যায় করছে। বেআইনিভাবে যত্রতত্র নির্বিচারে গুলি চালিয়ে হত্যা, নির্যাতন ও পঙ্গু করা এখন যেন তাদের নিত্যদিনের কর্ম হয়ে দাঁড়িয়েছে। ছাত্রনেতা সাইফুলের ওপর পুলিশের পৈশাচিক কর্মযজ্ঞ রাষ্ট্রীয় আইনে কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয় এবং মানবতাবিরোধী অপরাধ।

বিএনপির মহাসচিব অভিযোগ করেন, রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় পুলিশ দিয়ে হামলা করে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টির মধ্য দিয়ে সরকার রাষ্ট্রক্ষমতা দীর্ঘায়িত করার অপচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। এই উদ্দেশ্য পূরণে সরকার দিন দিন দানবীয় রূপ ধারণ করছে। তিনি সরকারের এরূপ দানবীয় আচরণের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে দল–মতনির্বিশেষে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। সারা দেশে গুম, খুন, অপহরণ ও বিচারবহির্ভূত হত্যা চালিয়ে দেশকে ত্রাসের রাজ্যে পরিণত করা হচ্ছে বলে তিনি দাবি করেন।