বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

খন্দকার মোশাররফ বলেন, বর্তমান সরকার থাকলে কীভাবে নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে? অতীত অভিজ্ঞতা বলে, নির্দলীয় ও নিরপেক্ষ নির্বাচন ছাড়া সুষ্ঠু নির্বাচন হয়নি‌।‌ তাই এই সরকারের অধীনে বিএনপি আর কোনো নির্বাচনে অংশ নেবে না।

২০১৮ সালের নির্বাচনে বিএনপি সংলাপে অংশ নিয়ে আওয়ামী লীগের সহযোগিতা করলেও আওয়ামী লীগ সুষ্ঠু নির্বাচন দিতে ব্যর্থ হয়েছে বলে মন্তব্য করেন খন্দকার মোশাররফ। তিনি বলেন, দিনের ভোট রাতে করার মাধ্যমে জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে।

দেশের গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার এবং বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্তি এই মুহূর্তে বিএনপির জন্য চ্যালেঞ্জ বলেও মন্তব্য করেন খন্দকার মোশাররফ। তিনি বলেন, দেশের জনগণ গণ–আন্দোলনের জন্য প্রস্তুত আছে। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে বিএনপি নেতা-কর্মীদের যুগপৎ আন্দোলন করে সরকারকে বিদায় জানাতে হবে।

অনুষ্ঠানে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল হায়দার সভাপতিত্ব করেন। বক্তব্য দেন বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীর প্রতীক, বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান, জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আহসান হাবীব প্রমুখ।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন