দেশজুড়ে যখন হরতাল-অবরোধের নামে চলছে নাশকতা, তখন বগুড়ার আদমদীঘিতে বসেছিল রাজনৈতিক সম্প্রীতির মিলনমেলা। সহিংসতার বিরুদ্ধে কথা বলাতে সেখানে একত্র হয়েছিলেন আওয়ামী লীগ ও বিএনপির উপজেলা পর্যায়ের শীর্ষ নেতারা।
গত শনিবার ব্যতিক্রমধর্মী এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে আদমদীঘি থানা। থানা চত্বরে মহান একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে আওয়ামী লীগ নেতাদের মধ্যে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম খান, সান্তাহার পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কাসেম, সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল বারি, আওয়ামী লীগের নেতা আবু রেজা খান, সাজেদুল ইসলাম, নিসরুল হামিদ, জার্জিস আলম, রফিকুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।
বিএনপির শীর্ষ নেতাদের মধ্যে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবদুল মহিত তালুকদার, সাধারণ সম্পাদক বুলবুল ফারুক, সহসভাপতি খন্দকার মেহেদী হাসান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম খান বলেন, ‘আমরা সব ধরনের সহিংসতার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছি। এ কারণে এই উপজেলায় কোনো রাজনৈতিক সন্ত্রাস নেই। এখানকার মানুষ অত্যন্ত শান্তিপ্রিয়। তাই আমরা এক জায়গায় মিলিত হয়েছি।’
উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবদুল মহিত তালুকদার বলেন, ‘আমরা সব সময় এলাকায় শান্তি চাই। তাই শান্তির জন্য সব সন্ত্রাস-হানাহানির ঊর্ধ্বে থাকতে চাই।’
আদমদীঘি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোসলেম উদ্দীন বলেন, দুই দলের মধ্যে সম্প্রীতি থাকলে এলাকায় কোনো সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ঘটতে পারে না।

বিজ্ঞাপন
রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন