বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, ‘করোনার সংক্রমণ এখন কমেছে অনেক। আমরা একটা গাইডলাইন দিয়ে দিয়েছি, এক দিনের বেশি যাতে কেউ স্কুলে না আসে। করোনা সংক্রমণ তারা যে ঘরে থাকলে হতো না বা স্কুলে যাওয়ার কারণে হয়েছে, এটার কোনো সত্যতা এখনো পর্যন্ত নেই। তারা স্কুলে না গেলেও তো অন্যান্য জায়গায়, আত্মীয়স্বজনের বাসায়, বিনোদনকেন্দ্রসহ সবখানে যাচ্ছিল। আমরা দেখেছি সুনির্দিষ্ট কিছু জায়গায় এটা হয়েছে। আমরা সেখানে ব্যবস্থা নিয়েছি।’

উল্লেখ্য, গত বুধবার করোনার উপসর্গ নিয়ে মানিকগঞ্জের এক স্কুলছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। ওই ছাত্রীর নাম সুবর্ণা ইসলাম ওরফে রোদেলা। মেয়েটি ১৫ সেপ্টেম্বর সর্বশেষ স্কুলে এসেছিল। তখন তার শরীরে কোনো সমস্যা ছিল না বলে জানান স্কুলটির প্রধান শিক্ষক।

প্রীতিলতার আত্মাহুতি প্রসঙ্গে মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, ‘ঔপনিবেশিক শাসনের অবসানের জন্য মাস্টারদা সূর্য সেনের নেতৃত্বে বীরকন্যা প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদারসহ চট্টগ্রামের যে বিপ্লবীরা আত্মাহুতি দিয়েছেন, তাঁদের কথা বিশ্ব মানব ইতিহাসে লেখা থাকবে। এই স্মৃতি অবশ্যই আমাদের ধরে রাখতে হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আগামীতে চট্টগ্রামকে ঘিরে কেউ যদি কোনো অপরাজনীতি করে, সেটার বিরুদ্ধে জবাব দিতে আমরা বিপ্লবীদের জীবন থেকে শিক্ষা নেব।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নগর যুবলীগ আহ্বায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চু, রেলওয়ে শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যকরী সভাপতি লোকমান হোসেন, কেন্দ্রীয় কমিটির সাংস্কৃতিক সম্পাদক আবু সুফিয়ান, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শিবু প্রসাদ চৌধুরী, নগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নূরুল আজিম, বীরকন্যা স্মৃতি সংরক্ষণ কমিটির আহ্বায়ক মহিম উদ্দিন ও সদস্যসচিব লিটন চৌধুরী, নগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর, যুগ্ম সম্পাদক সুজন বর্মণ, হাজী মুহাম্মদ মহসীন কলেজ ছাত্রলীগের মায়মুন উদ্দিন মামুন প্রমুখ।

প্রীতিলতার ভাস্কর্যে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় শ্রমিক লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, মহসীন কলেজ ছাত্রলীগ, চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগ, চট্টগ্রাম বিপ্লব ও বিপ্লবী স্মৃতি সংরক্ষণ পরিষদ এবং বীরকন্যা স্মৃতি সংরক্ষণ কমিটি।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন