default-image

দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের হার আবার বাড়তে থাকায় স্থগিত হতে পারে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। তবে আগামীকাল বুধবার যশোর সদর, মাদারীপুরের কালকিনি পৌরসভায় নির্ধারিত ভোট অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া ঠাকুরগাঁও সদরের ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ পৌরসভায় একটি করে ওয়ার্ডে নির্ধারিত ভোট হবে। এর আগে এসব পৌরসভায় ভোট স্থগিত করা হয়।

গতকাল সোমবার নির্বাচন কমিশনারদের এক বৈঠকে নির্বাচন স্থগিতের বিষয়ে মতামত এসেছে। তবে কমিশনের সভার পর আগামী ১ এপ্রিল চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানা যাবে।

নির্বাচন কমিশন সূত্র বলছে, গতকালের বৈঠকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত নির্ধারিত ভোট গ্রহণের সিদ্ধান্ত হয়।

বিজ্ঞাপন

আগামী ১১ এপ্রিল থেকে দেশে প্রথম ধাপে ৩২৩টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) ভোট শুরু হওয়ার কথা। প্রায় সাড়ে চার হাজার ইউনিয়ন পরিষদে কয়েকটি ধাপে ভোট সম্পন্ন হওয়ার কথা রয়েছে।

দেশে ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চসংখ্যক করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার রেকর্ড হয় রোববার। ওই দিন সকাল আটটা থেকে সোমবার সকাল আটটা পর্যন্ত করোনাভাইরাসে ৫ হাজার ১৮১ রোগী সংক্রমিত হন। এর পরদিন সোমবার বৈঠক করেন নির্বাচন কমিশনাররা।

২০১৬ সালের ২২ মার্চ থেকে জুন পর্যন্ত ছয় ধাপে চার হাজারের বেশি ইউপির নির্বাচন হয়েছিল দলীয় প্রতীকে (চেয়ারম্যান পদে)। স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইনে পরিষদ গঠনের জন্য কোনো সাধারণ নির্বাচনের দিন থেকে পাঁচ বছর পূর্ণ হওয়ার আগের ১৮০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করার বিধান আছে। সে অনুযায়ী মার্চ থেকে ভোট শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু চূড়ান্ত ভোটারতালিকা হালনাগাদে দেরি হওয়ায় এপ্রিলে নির্বাচনের দিন নির্ধারণ করা হয়।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন