default-image

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে সিটি স্ক্যানসহ নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে গুলশানের বাসভবন ফিরোজা থেকে তাঁকে হাসপাতালের উদ্দেশে নেওয়া হয়।

খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক দলের সদস্য এ জেড এম জাহিদ হোসেন মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেছেন, সিটি স্ক্যান ছাড়া যেসব পরীক্ষা বাসায় রেখে সম্ভব নয়, ওই সব পরীক্ষাও এভারকেয়ার হাসপাতালে করানো হবে।

খালেদা জিয়ার সঙ্গে তাঁর চিকিৎসক দলের বাকি সদস্যদের মধ্যে এফ এম সিদ্দিকী, আল মামুন ও বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং দলের যুগ্ম মহাসচিব মাহবুব উদ্দিন খোকনও রয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

এর আগে মঙ্গলবার বিকেলে মুঠোফোনে আবদুস সাত্তার প্রথম আলোকে বলেছিলেন, স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য সন্ধ্যার পর বিএনপির চেয়ারপারসনকে হাসপাতালে নেওয়া হবে। কোভিডজনিত নতুন কোনো জটিলতা দেখা দিয়েছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার অংশ হিসেবেই হাসপাতালে নেওয়া হবে তাঁকে।

১৫ এপ্রিল সিটি স্ক্যান করাতে খালেদা জিয়াকে একই হাসপাতালে নেওয়া হয়। তখন সিটি স্ক্যানের প্রতিবেদনে খালেদা জিয়ার ফুসফুসে ন্যূনতম সংক্রমণ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছিলেন তাঁর চিকিৎসকেরা।

এদিকে ১০ এপ্রিল নমুনা জমা দেওয়ার পর ১১ এপ্রিল খালেদা জিয়ার করোনা পজিটিভ আসে। দ্বিতীয় দফায় করোনার নমুনা জমা দেওয়ার পর ২৫ এপ্রিলও ফল পজিটিভ আসে। এরপর গত দুই দিন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা কেমন, তা জানা যায়নি।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন