আজ শুক্রবার এক বিবৃতিতে বিএনপির মহাসচিব বলেন, বাণিজ্যসচিবের সঙ্গে মিলমালিকদের বৈঠকের পর এক লাফে প্রতি লিটারে বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম ৩৮ টাকা ও খোলা সয়াবিন তেলের দাম ৪৪ টাকা বাড়ানো হয়েছে। সয়াবিন তেল এখন সোনার হরিণ। ঈদুল ফিতরের প্রাক্কালে বাজার থেকে সয়াবিন তেল উধাও এবং গতকাল সয়াবিন তেলের মূল্যবৃদ্ধি অভিনব ও নজিরবিহীন ঘটনা। এ সিদ্ধান্ত জনগণকে চরম ভোগান্তিতে ফেলেছে।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ক্ষমতাসীন মহলের সিন্ডিকেটের দৌরাত্ম্যেই বাজার থেকে সয়াবিন তেল গায়েব হয়। তেলের মূল্যবৃদ্ধির কারণে মধ্যম ও স্বল্প আয়ের মানুষকে গচ্চা দিতে হচ্ছে অতিরিক্ত অর্থ। ভোজ্যতেল হিসেবে সয়াবিন তেল অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি পণ্য। নিত্যপ্রয়োজনীয় এই পণ্যকে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করে শত শত কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়াই প্রধান লক্ষ্য।

সরকার নিজেদের গোষ্ঠীস্বার্থে সয়াবিন তেলের মূল্য বৃদ্ধি করেছে অভিযোগ করে মির্জা ফখরুল বলেন, আশপাশে কোনো দেশেই ভোজ্যতেলের দাম বাড়ানো হয়নি। সয়াবিন তেলের মতো প্রয়োজনীয় পণ্যকে সরকারি গোষ্ঠী নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে জনগণকে চরম দুর্ভোগের মধ্যে ফেলেছে। ভোটারবিহীন সরকারকে জনগণের কাছে কোনো জবাবদিহি করতে হয় না বলেই এমন পরিস্থিতি।

সয়াবিন তেলের মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন