default-image

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া হকারদের দোকান ‘লুট’ করেছেন বলে দাবি করেছেন নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান। এ ছাড়া খালেদা জিয়া ব্যাংক, স্বর্ণের দোকান লুট করার চেষ্টা করেছেন বলেও দাবি করেন তিনি।
আজ রোববার দুপুরে চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ষাটনল থেকে মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া রুটে ফেরি সার্ভিস চালুর জন্য জায়গা পরিদর্শনকালে নৌপরিবহনমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
শাজাহান খান বলেন, খালেদা জিয়া বলেছিলেন ক্ষমতায় গেলে দেশের মানুষের চেহারা বদলে দেবেন। এখন দেখেন, পেট্রলবোমা মেরে মানুষের চেহারা পাল্টে দিচ্ছেন। তাঁর দাবি, খালেদা জিয়া ২০১৩ সালে ৫৫ জন চালক ও সহকারীকে হত্যা করেছেন। শুধু তা-ই নয়, তিনি পুলিশ, বিজিবি, মুক্তিযোদ্ধা, গার্মেন্টস ও রিকশা শ্রমিকও হত্যা করেছেন। বিএনপির চেয়ারপারসন পবিত্র কোরআন শরিফ, পবিত্র হাদিস শরিফ ও জায়নামাজ পুড়িয়েছেন বলেও তিনি দাবি করেন।
এ সময় উপস্থিত ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেন, যে যত কথাই বলুক না কেন, ২০১৯ সালের আগে কোনো নির্বাচন হবে না। ২০১৯ সালে শেখ হাসিনার অধীনেই নির্বাচন হবে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ড. মো. শামসুল হক ভূঁইয়া, বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান মো. শামসুদ্দোহা, চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, মতলব উত্তর উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মনজুর আহমেদ মঞ্জু প্রমুখ।

নৌপরিবহনমন্ত্রী রাজধানীতে এক শ্রমিক সমাবেশে খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ের গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির লাইন কেটে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিলেন। ওই দিন গভীর রাতেই ওই কার্যালয়ের বিদ্যুৎ লাইন কেটে দেওয়া হয়। পরে অবশ্য বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়। মন্ত্রী খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে খাবার বন্ধ করে দেওয়ার কথাও বলেছিলেন। গত বুধবার থেকে ওই কার্যালয়ে বাইরে থেকে খাবার নিতে দেওয়া হচ্ছে না।

বিজ্ঞাপন
রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন