default-image

শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেছেন, এই দুর্যোগে যখন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে, তখন হেফাজত বিএনপি-জামায়াতের সঙ্গে যুক্ত হয়ে ক্ষমতা পরিবর্তন করার জন্য কিছু এতিম শিশুর হাতে লাঠি দিয়ে সংঘাতে নামিয়ে দিয়েছে।

জমলখান ওয়ার্ডের এক হাজার পরিবারের মধ্যে ইফতার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষা উপমন্ত্রী এ কথা বলেন। আজ বৃহস্পতিবার বিকেল চারটায় নগরের লাভলেইনে স্মরণিকা কমিউনিটি সেন্টারে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক উপসমাজসেবা সম্পাদক ফরহাদুল ইসলাম চৌধুরীর ব্যবস্থাপনায় এ ইফতার বিতরণ করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, হেফাজতের লক্ষ্য ছিল এই সংঘাতে কওমি মাদ্রাসার ছাত্ররা মারা গেলে সেটিকে পুঁজি করে তারা এই সরকারকে বিশ্বের কাছে প্রশ্নবিদ্ধ করবে। কিন্তু এটা এই বাংলাদেশে কখনোই সম্ভব হবে না। কারণ, এই বাংলাদেশের মানুষকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অন্তর থেকে ভালোবাসেন। তাই তারা এত ধ্বংসযজ্ঞ করার পরও নিয়মতান্ত্রিক বিচারের মাধ্যমে দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী তাদের বিচার হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন
রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন