default-image

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য, স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বিএনপির উদ্দেশে বলেছেন, ‘আমি স্পষ্ট করে বলে দিতে চাই, ২০১৯ সালের আগে দেশে কোনো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে না। ১৯ সালের নির্বাচনের প্রস্তুতি নিন। খেলা হবে সেই নির্বাচনের মাঠে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সেই নির্বাচন হবে নিরপেক্ষ। সেই নির্বাচনে দেশের সাধারণ মানুষ বিএনপিকে প্রত্যাখ্যান করে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪-দলীয় জোটকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করবে।’
মন্ত্রী আরও বলেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচন না হলে দেশে মার্শাল ল জারি হতো। এখানে এভাবে জনসভা করা যেত না। ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের মাধ্যমে দেশে গণতন্ত্রের ধারা অক্ষুণ্ন রয়েছে।
‘বিএনপি-জামায়াত জঙ্গি জোটের হরতাল-অবরোধের নামে পুড়িয়ে মানুষ হত্যা, নৈরাজ্য ও সন্ত্রাসের প্রতিবাদে’ আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন মোহাম্মদ নাসিম। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে রাজশাহী ১৪ দলের উদ্যোগে গতকাল মঙ্গলবার বিকেল চারটায় রাজশাহীর কাঁটাখালী জুটমিল হাইস্কুল মাঠে এ জনসভা অনুষ্ঠিত হয়।
খালেদা জিয়ার উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, ‘আপনি (খালেদা জিয়া) স্বেচ্ছায় ৫০ দিন ধরে অবরুদ্ধ হয়ে আপনার কার্যালয়ে অবস্থান করে নাটক করছেন। বাইরে বেরিয়ে দেখুন, আপনার অবৈধ হরতাল-অবরোধ এ দেশের জনগণ মানে না। সারা দেশের প্রতিটি জায়গায় বাসসহ সব যানবাহন চলছে, দোকানপাট খোলা রয়েছে।’
জনসভায় বেসামরিক বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের এ ধারাবাহিকতায় আগামী ৬ এপ্রিল থেকে রাজশাহীতে বাংলাদেশ বিমানের চলাচল শুরু হবে।’
সাবেক শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়ুয়া বলেন, ‘দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে, তখন বিএনপি-জামায়াত সহিংসতার মাধ্যমে দেশের উন্নয়নে বাধা দিচ্ছে। আমরা তাদের সকল সহিংসতা দমন করে দেশকে সামনে এগিয়ে নিতে চাই।’
মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটনের সভাপতিত্বে জনসভায় অন্যান্যের মধ্যে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ, সাংসদ ওমর ফারুক চৌধুরী, ফজলে হোসেন, আয়েন উদ্দিন, ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক, আবদুল ওয়াদুদ দারা, বেগম আখতার জাহান প্রমুখ বক্তব্য দেন।

বিজ্ঞাপন
রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন