অনুশীলনে ইয়াসিন
অনুশীলনে ইয়াসিনফাইল ছবি

কাল দোহায় নিজেদের দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে লুসাইল ক্লাবের বিপক্ষে ১–০ গোলে হেরেছে বাংলাদেশ দল। হারের সঙ্গে জুটেছে গুরুত্বপূর্ণ ডিফেন্ডার ইয়াসিন খানের চোটও। কাল ম্যাচে গুরুতর আহত হয়ে তাঁর চোখের ওপরের অংশে সেলাই পড়েছে চারটি। বিষয়টি কাতার থেকে নিশ্চিত করেছেন ইয়াসিন খান নিজেই।


ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে বদলি হিসেবে মাঠে নামেন সেন্টারব্যাক ইয়াসিন। বাতাসে বলের দখল নিতে প্রতিপক্ষ এক খেলোয়াড়ের সঙ্গে লাফিয়ে উঠলে সংঘর্ষে চোখের ওপরের অংশে ফেটে যায় তাঁর। ম্যাচ শেষে হাসপাতালে নেওয়া হয় ইয়াসিনকে। দিতে হয় চারটি সেলাই।

default-image
বিজ্ঞাপন

আঘাতটা একটু এদিক–সেদিক হলেই বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারত। সে রকম কিছু না হওয়াতেই আপাত স্বস্তি ইয়াসিনের, ‘আরেকটু এদিক–সেদিক হলে বড় দুর্ঘটনা হতে পারত। আল্লাহর রহমতে চোখটা বেঁচে গেছে।’ চারটি সেলাই পড়লেও আগামীকাল থেকে অনুশীলনে যোগ দিতে পারবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। কাতারের বিপক্ষে ম্যাচে অভিজ্ঞ এই সেন্টারব্যাককে পাওয়া যাওয়া নিয়ে শঙ্কা নেই বলে জানিয়েছেন দলের কর্মকর্তারাও। গত বছরের অক্টোবরে কলকাতায় অনুষ্ঠিত ভারতের বিপক্ষে বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে কপাল ফেটে গিয়েছিল ইয়াসিনের। সেবার সেলাই পড়েছিল তিনটি।

default-image

৪ ডিসেম্বর বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের বাছাইয়ে কাতারের বিপক্ষে ফিরতি ম্যাচে মাঠে নামবে বাংলাদেশ দল। তার আগে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচেই হেরেছে জামাল ভূঁইয়ার দল। প্রথম ম্যাচে কাতার সেনাবাহিনীর বিপক্ষে ৩–২ গোলে হারের পর কাল দ্বিতীয় বিভাগের ক্লাবের বিপক্ষে ১–০ গোলের হার।

বিজ্ঞাপন

প্রস্তুতি ম্যাচের লক্ষ্যই থাকে মূল ম্যাচের আগে ভুলত্রুটি শুধরে নেওয়া ও দলীয় কম্বিনেশন তৈরি করা। সে লক্ষ্যে প্রথম ম্যাচের দল থেকে কাল বেশ কয়েকটি পরিবর্তন আনা হয়েছিল একাদশে। দ্বিতীয়ার্ধেও বেশ কয়েকজন বদলি খেলোয়াড় মাঠে নামানো হয়। কিন্তু প্রস্তুতি ম্যাচে অন্তত একটি জয় পেলেও কাতারের বিপক্ষে বাড়তি আত্মবিশ্বাস নিয়ে মাঠে নামা যেত। সে সুযোগটি কাজে লাগাতে পারল না বাংলাদেশ দল।

মন্তব্য করুন