বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে বিসিবির বর্তমান নির্বাচক কমিটিকে নিয়ে মন্তব্য করে বিতর্কের শুরুটা করেন আশরাফুল। ওই টেলিভিশন চ্যানেলে আশরাফুল বলেন, ‘একই ব্যক্তি একটি কাজ ১১ বছর ধরে করতে থাকলে আপনি একটা জায়গায় আটকে থাকবেন। নির্বাচক প্যানেল এমন হওয়া উচিত, যাঁরাই হবেন তাঁরা তিন-চার বছরের জন্য দায়িত্ব পাবেন, একটা বিশ্বকাপ থেকে আরেকটা বিশ্বকাপ পর্যন্ত। এভাবে হলে আপনি ভিন্ন কিছু পাবেন, ভিন্ন কিছু ভাবনায় আসবে।’

default-image

পরে একই টেলিভিশন চ্যানেলের একটি লাইভ অনুষ্ঠানে এ নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া জানান মিনহাজুল। আশরাফুলকে ‘দেশদ্রোহী’ ও ‘ফিক্সার’ বলে মন্তব্য করে তাঁর কথা, ‘অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাচক কত বছর ধরে কাজ করেছেন, সে ধারণা আশরাফুলের নেই। অস্ট্রেলিয়া কি ক্রিকেটে পিছিয়ে গিয়েছে? আমাদের সকলের জানা উচিত, প্রায় ৯-১২ বছর ধরে কাজ করেছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাচক। সেখানে ও (আশরাফুল) বলছে বিশ্বকাপ থেকে বিশ্বকাপ!’

মিনহাজুলের প্রশ্ন, ‘কোন বিশ্বকাপ? বাংলাদেশ কি শুধু ওয়ানডে বিশ্বকাপ খেলবে, শুধু টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলবে, শুধু টেস্ট ক্রিকেট খেলবে? তাহলে কি ওয়ানডের জন্য একটা, টেস্টের জন্য একটা, টি-টোয়েন্টির জন্য একটা নির্বাচক কমিটি লাগবে? যে সমস্ত ক্রিকেটার দেশদ্রোহী হয়ে, ম্যাচ ফিক্সিং করে নিষিদ্ধ হয়, তাদের থেকে তো ভালো কোনো পরামর্শ আশা করা যায় না।’

default-image

মিনহাজুলের বক্তব্যের পাল্টা দিয়েছেন আশরাফুলও। ফেসবুক লাইভে এসে তিনি উল্টো অভিযোগ করেছেন, মিনহাজুলের ব্যক্তিগত অপছন্দের কারণেই নাকি তিনি জাতীয় দলে সুযোগ পাচ্ছেন না। এমনকি চলমান বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগেও (বিসিএল) নাকি মিনহাজুলের কারণেই কোনো দল পাননি আশরাফুল।

আশরাফুল যেহেতু বর্তমান খেলোয়াড় আর সাবেক একজন অধিনায়ক, আমি মনে করি সরাসরি এভাবে আক্রমণ করা ঠিক হয়নি। কাউকেই এভাবে আক্রমণ করা ঠিক নয়।
জালাল ইউনুস, বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান

মিনহাজুল–আশরাফুলের এমন মুখোমুখি অবস্থানে বিব্রত বিসিবি। এ নিয়ে অসন্তুষ্টির কথা জানিয়েছেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান জালাল ইউনুস। আজ মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘আশরাফুল যেহেতু বর্তমান খেলোয়াড় আর সাবেক একজন অধিনায়ক, আমি মনে করি সরাসরি এভাবে আক্রমণ করা ঠিক হয়নি। কাউকেই এভাবে আক্রমণ করা ঠিক নয়। আপনি একটা পদে আছেন বোর্ডে, ওই জায়গা থেকে এমন মন্তব্য না করাই ভালো ছিল। যেহেতু নির্বাচক কমিটি ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের অধীনে, আমি এটা নিয়ে তাদের সঙ্গে আলাপ করেছি।’

বিষয়টি নিয়ে তিনি বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসানের সঙ্গে কথা বলবেন বলেও জানিয়েছেন জালাল ইউনুস।

আশরাফুলের সঙ্গে মিনহাজুলের ব্যক্তিগত সম্পর্ক ভবিষ্যৎ দল নির্বাচনে সমস্যা হবে কি না, এ নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। জালাল ইউনুস এ ব্যাপারে বলেন, ‘আমার মনে হয় না এমন কিছু হবে। আমার মনে হয় না ব্যক্তিগতভাবে কেউ এর শিকার হবে। যারা আসবে পারফরম্যান্সের জোরেই দলে আসবে।’

খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন