বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

এই মৌসুমের শুরুতে জুভেন্টাস থেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে এসেছেন রোনালদো। রোনালদোকে পাওয়ার দৌড়ে এগিয়ে ছিল ম্যানচেস্টার সিটিই। কিন্তু শেষমেশ নিজের সাবেক ক্লাবের ভালোবাসার টান এড়াতে পারেননি এই পর্তুগিজ তারকা। আশা করেছিলেন, ইউনাইটেডের সোনালি সময় ফিরিয়ে আনবেন আবার।

কিন্তু অমনটা এখনো হয়নি, রোনালদোদের খেলা দেখে মনেও হচ্ছে না শিগগিরই অমনটা হবে। টকস্পোর্টসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সিনক্লেয়ার বলেছেন, রোনালদোকে দলে না এনে বড় বাঁচা বেঁচেছে তাঁর সাবেক ক্লাব, ‘আমি তো এমনটা ভাবা শুরু করেছি যে রোনালদোকে দলে না এনে বেশ বড় বাঁচা বেঁচে গেছে সিটি, অনেক বড় ঝামেলা এড়িয়েছে। আমি আসলেই এমনটা মনে করি।’

default-image

সিনক্লেয়ারের কাছে মনে হয়েছে, রোনালদো আসার কারণে দলের তরুণ খেলোয়াড়দের ফর্ম আরও খারাপ হচ্ছে, ‘আপনি ওদের কয়েকজন খেলোয়াড়ের দিকে দেখুন, ফর্মহীনতায় ভুগছে ওরা। সানচো, রাশফোর্ড, তাঁরা আসলেই ভালো খেলার জন্য কষ্ট করছে অনেক। অবশ্যই এটার জন্য রোনালদোকে দোষ দিতে হবে।’


সিনক্লেয়ারের মনে হয়েছে, আসল কাজ বাদ দিয়ে রোনালদো বড্ড বেশি কথা বলছেন, ‘রোনালদো, নিজের ভূমিকার কথা মাথায় রাখো। তুমি একজন ফুটবলার, তোমাকে ফুটবল খেলার জন্য টাকা দেওয়া হচ্ছে, এখানে আনা হয়েছে। নিজের মুখ বন্ধ রাখো, কারণ অনেক সময় মুখ বন্ধ রাখাই সবচেয়ে বড় সমাধান। ও ইউনাইটেডে অনেক সমস্যার সৃষ্টি করছে। শুধু গোল করতে পারছে না বলেই নয়। ওলে চলে গেল, ক্যারিকও ওকে একটা খেলায় বসিয়ে রাখল, এসব কিছুই হয়েছে এই কারণে।’

default-image

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের মোটামুটি পরিচিত মুখ এই সিনক্লেয়ার। সিটি ছাড়াও খেলেছেন ব্ল্যাকপুল, কুইন্স পার্ক রেঞ্জার্স ও ওয়েস্ট হ্যামের মতো ক্লাবগুলোর হয়ে। ২০০৩ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত ৮২ লিগ ম্যাচ খেলে ৫ গোল করেছেন এই উইঙ্গার। ইংল্যান্ডের হয়ে ২০০১ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত ১২ ম্যাচ খেলেছেন তিনি।

খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন