বিজ্ঞাপন

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড মেয়েদের আইপিএলের পূর্ণাঙ্গ সূচি এখনো ঘোষণা করেনি। তবে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, তিন দলের অংশগ্রহণে টুর্নামেন্ট হওয়ার কথা ৪ থেকে ৯ নভেম্বরের মধ্যে। সালমা ও জাহানারা কে কোন দলে খেলছেন সেটি অবশ্য এখনো নিশ্চিত করেনি আয়োজকেরা। বাংলাদেশ নারী দলের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তৌহিদ মাহমুদ প্রথম আলোকে বললেন, ‘ওদের দল নিয়ে বিস্তারিত জানায়নি। তবে ওরা খেলবে, এটা নিশ্চিত করেছে।’

default-image

জাহানারা আগেও সুযোগ পেয়েছেন মেয়েদের আইপিএলে। গত বছর ভেলোসিটির হয়ে দুটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন ২৭ বছর বয়সী পেসার। প্রথমটিতে ৩৪ রানে উইকেটশূন্য থাকলেও পরে ফাইনালে ২১ রানে নেন ২ উইকেট। যেহেতু দলের নাম নিশ্চিত হয়নি, জাহানারা এখনই আইপিএল নিয়ে কিছু বলতে চাননি। তবে জানালেন, প্রস্তুতিটা ভালোভাবেই নিয়ে রাখছেন তিনি,‘সব চূড়ান্ত হোক, তখন আনুষ্ঠানিকভাবে বলব। তবে নিজের প্রস্তুতি ভালোভাবে নিয়ে রাখছি। যখনই খেলার সুযোগ পাই, যেন ফিট থাকতে পারি। আর গত আইপিএলে দেখেছিলাম, ওখানকার পরিবেশ, প্রতিদ্বন্দ্বিতা অসাধারণ!’

default-image

সালমা প্রথমবারের মতো সুযোগ পেয়েছেন এই ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট। বাংলাদেশ নারী টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক বেশ উচ্ছ্বসিত, ‘এটা আমাদের জন্য অনেক বড় সুযোগ। অনেক দিন খেলার বাইরে আছি। চেষ্টা করব নিজের সেরাটা দিতে। পাঁচ-ছয় মাস বসে ছিলাম, কোরবানির ঈদের পর অনুশীলনের সুযোগ পেয়েছি। আশা করি ভালো প্রস্তুতি নিয়ে যেতে পারব।’

এটা আমাদের জন্য অনেক বড় সুযোগ। অনেক দিন খেলার বাইরে আছি। চেষ্টা করব নিজের সেরাটা দিতে।
সালমা খাতুন, অধিনায়ক, বাংলাদেশ নারী টি–টোয়েন্টি দল

করোনার প্রকোপে মার্চে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর থেকে খেলার বাইরে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। ছেলেদের দলীয় অনুশীলন শুরু হলেও মেয়েদের ক্রিকেট এখনো সেভাবে মাঠে নামাতে পারেনি বিসিবি। এই সময়ে আইপিএলে খেলার সুযোগ নিঃসন্দেহে বড় সুসংবাদ সালমা ও জাহানারার জন্য। দুবার করোনা পরীক্ষা করিয়ে নেগেটিভ হলে ২১ তারিখে দুবাইয়ে রওনা দেওয়ার কথা বাংলাদেশের দুই নারী ক্রিকেটারের। সেখানে অন্য খেলোয়াড়দের সঙ্গে তাঁরা একই হোটেলে ছয় দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকবেন।

খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন