বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত আগস্টে ৫২ জন (বর্তমানে আছে ৩২ জন) খেলোয়াড়কে কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহি মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে রেখে অনুশীলনের ব্যবস্থা করেছে বাফুফে। এ প্রকল্পের নাম দেওয়া হয়েছে ‘বাফুফে এলিট একাডেমি’। সেখানকার খেলোয়াড়দের নিয়ে ‘ডেভেলপমেন্ট স্কোয়াড’ নামে একটি দল গঠন করে সেই দলকে বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লিগে খেলানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাফুফে।

আজ বিকেলে বাফুফে ডেভেলপমেন্ট কমিটির সভায় সিদ্ধান্তটি চূড়ান্ত হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম। প্রথম আলোকে তিনি বলেন, ‘আগে থেকেই নীতিগতভাবে সিদ্ধান্ত ছিল একাডেমি দল চ্যাম্পিয়নশিপ লিগে খেলবে। চূড়ান্ত সিদ্ধান্তটা নেওয়া হয়েছে আজ। এতে আমাদের ছেলেরা অনেকগুলো করে প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবে।’ দেশের ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থার এই উদ্যোগের প্রশংসা করতেই হয়। তবে শেষ পর্যন্ত এটি নির্ভর করছে তাদের কথা রাখার ওপর।

default-image

২০১৯ সালে ফর্টিজ একাডেমি নিয়ে একই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছিল দেশের ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা বাফুফে। শেষ পর্যন্ত কথা রাখতে পারেনি তারা। এবার নিজেদের কথা রাখবে বাফুফে, সে আশা ফুটবলপ্রেমীদের।

আগামী বছর ফেব্রুয়ারিতে শুরু হবে পেশাদার ফুটবল লিগের দ্বিতীয় স্তরের লিগ টুর্নামেন্ট ‘চ্যাম্পিয়নশিপ লিগ’। সেখানে ডেভেলপমেন্ট স্কোয়াড চ্যাম্পিয়ন বা অবনমন হলে কী হবে, সে বিষয়গুলোর ব্যাপারে পরে সিদ্ধান্ত নেবে বাফুফে।

খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন