প্রিমিয়ার লিগের সেরা খেলোয়াড় হয়েছেন ম্যানচেস্টার সিটির ডি ব্রুইনা।
প্রিমিয়ার লিগের সেরা খেলোয়াড় হয়েছেন ম্যানচেস্টার সিটির ডি ব্রুইনা। ছবি: এএফপি

গতকাল রাতে অলিম্পিক লিওঁর কাছে হেরে চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে অপ্রত্যাশিতভাবে বিদায় নিয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। স্বাভাবিকভাবে এমন হারের পর হতাশায় ভুগছেন দলটির তারকা মিডফিল্ডার কেভিন ডি ব্রুইনার। তবে সেই ক্ষতে কিছুটা প্রলেপ দিতে পারে ২০১৯-২০ ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার। দর্শকদের ভোটে এবার প্রিমিয়ার লিগ মৌসুমের সেরা ফুটবলারের পুরস্কার জিতেছেন ২৯ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডার। গত ৯ মৌসুমে ভিনসেন্ট কোম্পানি ও এডেন হ্যাজার্ডের পর তৃতীয় বেলজিয়ান ফুটবলার হিসেবে এই পুরস্কার পেলেন ডি ব্রুইনা।

বিজ্ঞাপন

মৌসুমটা এবার ভালো যায়নি ম্যানচেস্টার সিটির। লিভারপুলের কাছে হারিয়েছে প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা। টিকে ছিল চ্যাম্পিয়নস লিগের আশা। কাল রাতে সেমিফাইনাল ওঠার লড়াইয়ে সে স্বপ্নের গুঁড়েও বালি। তবে যে লিভারপুলের কাছে লিগ শিরোপা খুইয়েছে ব্রুইনার ম্যান সিটি, সে দলের তিনজনকে পেছনে ফেলে সেরা খেলোয়াড় হয়েছেন ব্রুইনা। দর্শকদের ভোটে এই পুরস্কার জয়ের পথে তিনি হারিয়েছেন লিভারপুলের ট্রেন্ট আলেক্সান্ডার-আর্নল্ড, জর্ডান হেন্ডারসন ও সাদিও মানেকে।

এদের মধ্যে লিভারপুল অধিনায়ক হেন্ডারসন অবশ্য ইংল্যান্ডের ফুটবল লেখকদের সংগঠনের (এফডব্লুএ) মৌসুমসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার পেয়েছেন। এবার সমর্থকদের চোখে সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারের দৌড়ে ডি ব্রুইনা পেছনে ফেলেছেন সাউদাম্পটন স্ট্রাইকার ড্যানি ইংস, লেস্টার সিটি স্ট্রাইকার জেমি ভার্ডি ও বার্নলি গোলকিপার নিক পোপকেও।

বিজ্ঞাপন

ব্রুইনার সেরা খেলোয়াড় হওয়াটাই হয়তো স্বাভাবিক ছিল। সিটি এবার লিগে অধারাবাহিক থাকলেও দুর্দান্ত খেলেছেন বেলজিয়ান এই প্লেমেকার। নিজে গোল করেছেন ১৩টি, সতীর্থদের দিয়ে করিয়েছেন আরও ২০টি। তাতে ছুঁয়ে ফেলেছেন গোল করানো বা অ্যাসিস্টের লিগ রেকর্ডও। ২০০২-০৩ মৌসুমে ২০ গোল করিয়ে রেকর্ডটা গড়েছিলেন কিংবদন্তি আর্সেনাল ফরওয়ার্ড থিয়েরি অঁরি।

মন্তব্য করুন