বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ গ্রুপ পর্বে ভারতকে হারিয়েছিল পেনাল্টি থেকে পাওয়া একমাত্র গোলে। ফাইনালে জয়ের ব্যাপারে কতটা আত্মবিশ্বাসী?

গোলাম রব্বানী: ভারত শক্তিশালী প্রতিপক্ষ। তবে এই মেয়েদের ওপর আমার আস্থা আছে। ওদের আত্মবিশ্বাসের অভাব নেই। আশা করি, কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারব।

টুর্নামেন্টে ফরোয়ার্ডদের পাশাপাশি ডিফেন্ডাররাও গোল পেয়েছেন। এটা বাংলাদেশকে কতটা উজ্জীবিত করবে এই ম্যাচে?

গোলাম রব্বানী: এই দলের সবার গোল করার আত্মবিশ্বাস জন্মেছে। তা ছাড়া এই টুর্নামেন্টে বেঞ্চের অনেক ফুটবলারের অভিষেক হয়েছে। কিছু মেয়েকে বিশ্রাম দিয়েছিলাম। কিন্তু ওদের জায়গায় যে যখনই মাঠে এসেছে, জায়গাটা ভালোভাবে পূরণ করেছে। ম্যাচে খেলার ছন্দে কোনো ভাটা পড়েনি। এটা একটা ভালো দিক।

default-image

পুরো টুর্নামেন্টে বাংলাদেশই একমাত্র দল, যারা কোনো গোল খায়নি। এটা মেয়েদের অতি আত্মবিশ্বাসী করে দেবে কি না?

গোলাম রব্বানী: এটা ফাইনাল। এখানে কাউকে ছোট করে দেখার সুযোগ নেই। ভারত প্রতিটি ম্যাচ ভালো খেলেই ফাইনালে উঠেছে; যদিও গ্রুপ পর্বে ওদের বিপক্ষে আমরাই জিতেছি। কিন্তু ওরা অবশ্যই ভালো প্রতিপক্ষ। তবে মাঠে দুই দলই সুযোগ পাবে। আমরা সেই সুযোগ নেওয়ার সর্বোচ্চ চেষ্টা করব।

আগের ম্যাচগুলোয় বেশির ভাগ সময়ই বাংলাদেশের গোলরক্ষক রুপনা চাকমাকে পোস্টের নিচে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়েছে। সেভাবে কঠিন পরীক্ষায় পড়তে হয়নি।

গোলাম রব্বানী: এটা সত্যি যে ওকে এবার বেশি সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়নি। আমি মনে করি, এই টুর্নামেন্টের অন্যতম সেরা গোলকিপার রুপনা। ওর কোনো দুর্বলতা দেখি না। প্রতিটি ম্যাচে সে সর্বোচ্চটা দিয়েই খেলে। ফাইনালে যেহেতু ভারতের বিপক্ষে খেলবে সে, নিশ্চয়ই তার পারফরম্যান্স আরও ভালো হবে।

খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন