প্রথম ইনিংসে আলজারি জোসেফকে তুলে মারতে গিয়ে সীমানায় ধরা পড়েন সাকিব। অবশ্য দলের তখন যা অবস্থা, তাতে অমন শটের খুব একটা বিকল্প তাঁর কাছে থাকার কথা নয়ও। তিনি যে আউট হয়েছিলেন নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে। তবে দ্বিতীয় ইনিংসে আক্রমণ করতে গিয়েই নিজের বিপদ ডেকে আনেন সাকিব। এমনিতে শারীরিক দিক দিয়ে খুব একটা স্বস্তিতে ছিলেন বলে মনে হয়নি, হয়তো শরীর থেকে দূরে শট খেলার সেটিও একটি কারণ।

তবে ডমিঙ্গো বলছেন, শট নির্বাচনের ব্যাপারে সাকিবকে আরেকটু সতর্ক হতে। ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রধান কোচ বলেছেন, ‘দেখুন, সাকিব সবসময়ই রান করার চেষ্টা করে। আমরা চাই না সে স্লগ করুক। আমরা চাই সে ভালো ক্রিকেট শট খেলুক। সেটা করেই প্রতিপক্ষের ওপর কিছুটা চাপ প্রয়োগ করুক।’

সাকিবের কাছে কোচের চাওয়া মূলত আরও বেশি রান, ‘সেও জানে যে শুরুর সময়টা কাটিয়ে দিলে তাকে দীর্ঘ ইনিংসটা খেলতে হবে। তাকে সেঞ্চুরি করতে হবে।’ তবে বড় ইনিংস খেলার দায়িত্ব যে শুধু সাকিবের একার নয়, সেটিও মনে করিয়ে দিয়েছেন ডমিঙ্গো, ‘দলের সেরা ছয় ব্যাটসম্যানদের সেঞ্চুরি করতে হবে।’

এ নিয়ে টানা তৃতীয় ইনিংসে অর্ধশতক করলেন সাকিব। তবে ৫টি শতকের সর্বশেষটি সাকিব পেয়েছেন ৫ বছরেরও বেশি সময় আগে, ২০১৭ সালের মার্চে কলম্বোয় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরার পর সাকিবের এটি পঞ্চম অর্ধশতক। তবে এর কোনোটিতেই সাকিব ৬৮ রানের বেশি করতে পারেননি।

default-image

বড় ইনিংস খেলতে গেলে সাকিবকে কী করতে হবে, সেটিও বলেছেন ডমিঙ্গো, ‘তাকে আক্রমণ ও রক্ষণের ভারসাম্যটা খুঁজে বের করতে হবে। মাঝে মাঝে প্রতি-আক্রমণ করতে হবে। কিন্তু তাকে মারার সময় মাথার অবস্থান, শরীরের অবস্থান ঠিক রাখতে হবে। কারন সে একজন সামর্থ্যবান ব্যাটসম্যান, যেটা সে আজ দেখিয়েছে।’

ব্যাটসম্যান সাকিবের কাছে এমন চাওয়া থাকলেও অধিনায়ক সাকিবকে নিয়ে বেশ ‘খুশি’ই মনে হয়েছে ডমিঙ্গোকে, ‘সে অভিজ্ঞ খেলোয়াড়, অভিজ্ঞ অধিনায়ক। এর আগে অনেক অধিনায়কত্ব করেছে। স্মার্ট… আমি তাকে অল্প সময়ের জন্য অধিনায়ক হিসেবে পেয়েছিলাম এর আগে, সাকিব সব সময়ই পারফরম্যান্স দিয়ে দলকে নেতৃত্ব দেবে। সে ব্যাটে-বলে অন্যতম সেরা পারফর্মার, অধিনায়কত্ব ও নেতৃত্বের দিক দিয়ে তার অনেক কিছু দেওয়ার আছে।’

খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন